ইউরোপ

সিরিয়ায় যা ঘটেছিল ইউক্রেনে তার পুনরাবৃত্তি

প্যারিস, ২৯ মার্চ – ইউক্রেনে যা ঘটছে তা মূলত সিরিয়ায় আমরা যা দেখেছি সেটিরই পুনরাবৃত্তি বলে জানিয়েছেন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের সেক্রেটারি অ্যাগনেস ক্যালামার্ড। বিশ্বে মানবাধিকারের পরিস্থিতি নিয়ে সংস্থাটির বার্ষিক প্রতিবেদন প্রকাশের সময় তিনি এ কথা বলেন। খবর এএফপির।

রুশ সেনাদের প্রবল হামলার মধ্যে বেশ কয়েকটি শহর থেকে সাধারণ মানুষকে নিরাপদে বের হয়ে যাওয়ার সুযোগ দিতে পদক্ষেপ নেওয়া হলেও রাশিয়ার বিরুদ্ধে মানবিক করিডোরকে ‘মৃত্যুর ফাঁদে’ পরিণত করার অভিযোগও করেন অ্যাগনেস ক্যালামার্ড।

এই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘আমরা নির্বিচারে হামলা চালানোর বিরুদ্ধে। আমরা (ইউক্রেনের) বেসামরিক অবকাঠামোগুলোতে ইচ্ছাকৃত হামলার মধ্যেই রয়েছি।’

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের এই সেক্রেটারি জেনারেল বলেন, ‘রাশিয়া সিরিয়াতে যা করেছে, আমরা ইউক্রেনে সেই একই দৃশ্য দেখতে পাচ্ছি। ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরুর একমাসেরও বেশি সময় পর এই মুহূর্তে মানবাধিকারবিষয়ক এই সংস্থাটির পর্যবেক্ষণ হচ্ছে, ইউক্রেনে যুদ্ধাপরাধ বাড়ছে।’

এদিকে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে এক পৃথক সংবাদ ব্রিফিংয়ে পূর্ব ইউরোপে অ্যামনেস্টির পরিচালক ম্যারি স্ট্রাথার্স বলেন, সিরিয়া ও চেচনিয়াতে রাশিয়া যে কৌশল অবলম্বন করেছিল, ইউক্রেনেও তারা একই কৌশল ব্যবহার করছে বলে পূর্ব ইউরোপের এই দেশটিতে অবস্থানরত গবেষকরা নথিবদ্ধ করেছেন।

তিনি আরও বলেন, সিরিয়া ও চেচনিয়ার মতো ইউক্রেনেও বেসামরিক নাগরিকদের ওপর হামলা করছে রাশিয়ার সেনারা। একই সঙ্গে ইউক্রেনে মস্কো এমন কিছু অস্ত্রের ব্যবহার করছে যার ব্যবহার আন্তর্জাতিক আইনে নিষিদ্ধ।

উল্লেখ্য, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ভোরে ইউক্রেনে হামলা শুরু করে রাশিয়ান সৈন্যরা। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ইউরোপের প্রথম দেশ হিসেবে রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনী স্থল, আকাশ ও সমুদ্রপথে ইউক্রেনে এই হামলা শুরু করে। একসঙ্গে তিন দিক দিয়ে হওয়া এই হামলায় ইউক্রেনের বিভিন্ন শহরে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পড়েছে বৃষ্টির মতো।

সূত্র: আরটিভি
এম ইউ/২৯ মার্চ ২০২২

Back to top button