এশিয়া

হামলার সক্ষমতা আরও বাড়ানোর অঙ্গীকার উত্তর কোরিয়ার

পিয়ংইয়ং, ২৮ মার্চ – হামলার সক্ষমতা আরও বাড়ানোর পরিকল্পনার কথা জানালেন উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন। ২০১৭ সালের পর প্রথম আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানোর কয়েকদিন পর এমন খবর জানালেন তিনি। সোমবার (২৮ মার্চ) আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম কেসিএনএতে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে জানানো হয়, উত্তর কোরিয়া শিগগিরই আরও উন্নত ক্ষেপণাস্ত্র এমনকি পারমাণবিক অস্ত্রেরও পরীক্ষা চালাতে পারে। যেহেতু দেশটি অস্ত্রের আধুনিকায়নে কাজ করছে।

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার দেশটি চলতি বছরে ১২তম বারের মতো ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায়। এসময় নতুন ধরনের দীর্ঘ পরিসরের হাওয়াসং-১ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানো হয়। বিশ্লেষকরা মনে করছেন এটি যুক্তরাষ্ট্রের যেকোনো স্থানে আঘাত হানতে সক্ষম।

ক্ষেপণাস্ত্রটির পরীক্ষা চালানো সময় বিজ্ঞানী ও সংশ্লিষ্টদের কিম জানান, যেকোনো হুমকি মোকাবিলায় উত্তর কোরিয়ার সক্ষমতা বাড়ানো হবে।

পিয়ংইয়ং জানায়, হাওয়াসং-১৭ সর্বোচ্চ ছয় হাজার ২৪৮ কিলোমিটার উচ্চতায় ৬৭ মিনিটে এক হাজার ৯০ কিলোমিটার দূরে অর্থাৎ কোরিয়ান পেনিনসুলা ও জাপানের জলসীমার মধ্যে পড়ে।

গত বছর বেশ কয়েকবার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালায় উত্তর কোরিয়া। অক্টোবরের শুরুতে বিমানবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাও চালায় দেশটি। এর আগে হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানোর অভিযোগ ওঠে তাদের বিরুদ্ধে। গত বছরের সেপ্টেম্বরেও পিয়ংইয়ং ব্যালিস্টিক ও ক্রুজ উভয় ধরনের ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায়।

পরমাণু ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচির কারণে ২০০৬ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞায় রয়েছে উত্তর কোরিয়া। এসব কর্মসূচিতে অর্থায়ন বন্ধ করতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদও ধারাবাহিকভাবে বিধিনিষেধ বাড়িয়েছে। কিন্তু সব নিষেধাজ্ঞাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া।

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/২৮ মার্চ ২০২২

Back to top button