ইউরোপ

ফ্রান্সকে তিরস্কার জেলেনস্কির

কিয়েভ, ২৮ মার্চ – রাশিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যেতে অব্যাহতভাবে সহযোগিতা করার জন্য যুক্তরাজ্যের প্রশংসা করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। অপরদিকে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁর তীব্র সমালোচনা করেছেন তিনি।

পশ্চিম ইউরোপের দেশগুলো রাশিয়ার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে কিয়েভকে সাহায্য করছে কি করছে না সে বিষয়ে ইকোনমিস্টকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নিজের এ দৃষ্টিভঙ্গি তুলে ধরেন জেলেনস্কি।

জেলেনস্কি ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁর তীব্র সমালোচনা করে বলেন, এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ সামরিক সহযোগিতা দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। কারণ তারা রাশিয়াকে ভয় পায় এবং এটিই সত্য।

সাক্ষাৎকারে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন সম্পর্কে জেলেনস্কি বলেন, অস্ত্র পাঠানোর ক্ষেত্রে বরিস জনসন অনেক উৎসাহী। হ্যাঁ, সত্যি বলতে, জনসন এমন একজন নেতা, যিনি প্রচুর সহযোগিতা করছেন। তিনি এ ক্ষেত্রে দৃষ্টান্ত।

তিনি আরও বলেন, প্রকৃতপক্ষে ব্রিটেন আমাদের পক্ষে। দেশটি ভারসাম্যমূলক অবস্থান নেয়নি। পরিস্থিতি থেকে বের হওয়ার ভিন্ন কোনো পথ দেখছে না ব্রিটেন। ব্রিটেন চায় রাশিয়ার বিরুদ্ধে ইউক্রেনের জয় হোক।

অন্যদিকে জার্মানি আত্মরক্ষার তালে আছে বলে মনে করেন জেলেনস্কি।

তিনি বলেন, জার্মানি দুই দেশের মধ্যে ভারসাম্য রক্ষার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের সঙ্গে রাশিয়ার দীর্ঘদিনের সম্পর্ক বিদ্যমান। তারা অর্থনীতির প্রিজমের মাধ্যমে এ পরিস্থিতিকে দেখছে। তারা মাঝেমাঝে সাহায্য করে। আমি মনে করি, তারা পরিস্থিতির সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে।

জেলেনস্কি বলেন, এ পরিস্থিতি তাদের দেশের ওপর কী প্রভাব ফেলে তারা তা দেখার চেষ্টা করছে। তারা সাহায্য করবে যদি দেশের মধ্য থেকে চাপ তৈরি হয় এবং তারা সাহায্য দেওয়া বন্ধ করবে যখন তারা মনে করবে যে, ইতোমধ্যে যা করা হয়েছে, তা যথেষ্ট হয়েছে।

২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনের দোনবাস অঞ্চলে সামরিক অভিযানের নির্দেশ দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এর পর থেকে ইউক্রেনে হামলা চালাচ্ছে রুশ সেনারা। প্রতিক্রিয়ায় যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
এম ইউ/২৮ মার্চ ২০২২

Back to top button