ক্রিকেট

সোমবার মোহামেডানের হয়ে খেলবেন সাকিব

ঢাকা, ২৮ মার্চ – রোববার রাতে ক্লাব পাড়ায় হঠাৎ গুঞ্জন, সাকিব নাকি আগামীকাল সোমবার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে মোহামেডানের হয়ে শেখ জামালের বিপক্ষে খেলতে পারেন?

সবার জানা, অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে থাকা মা, তিন সন্তান ও শাশুড়ির শয্যাপাশে দাঁড়াতে ওয়ানডে সিরিজ শেষে দেশে ফিরে এসেছেন সাকিব আল হাসান এবং বিসিবির অনুমতি সাপেক্ষেই তার এ ফিরে আসা।

এর মধ্যে ক্যানসারে আক্রান্ত শাশুড়ির অবস্থা বেশ খারাপ। ক্যন্সারের ফোর্থ স্টেজ চলছে। তাই সাকিবের স্ত্রী উম্মে আহমেদ শিশির এভারকেয়ার হাসপাতালে তার মায়ের পরিচর্যা ও দেখভালের জন্য সঙ্গেই অবস্থান করছেন।

এমন এক পরিস্থিতিতে সাকিবের পক্ষে ঢাকা ফেরার পর একদিনও অনুশীলনে যোগ দেওয়া সম্ভব হয়নি। তারপরও রোববার রাতে হঠাৎ চাপা গুঞ্জন, শেখ জামাল ধানমন্ডির বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে সাকিব নাকি খেলতেও পারেন।

দেশে ফেরার পর তিনি এক বেলা দুরে থাক, এক মুহূর্তের জন্য প্র্যাকটিস করার সুযোগ পাননি। তিনি হুট করে সোমবার বিকেএসপি মাঠে শেখ জামালের বিপক্ষে খেলবেন? হিসেব মেলানো কঠিন। মোহামেডান অফিসিয়ালসরা কী বলেন?

ঘটনা কী সত্য? সত্যিই সাকিব সোমবার মোহামেডানের হয়ে শেখ জামালের বিপক্ষে বিগ ম্যাচ খেলবেন? মোহামেডান ক্রিকেট কমিটির শীর্ষ কর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে ‘হ্যাঁ, না- কিছুই পরিষ্কার করে জানা যায়নি।

সাকিব সোমবার খেলবেনই, এমন কথা জোর দিয়ে বা নিশ্চিত করে বলেননি মোহামেডান কর্তাদের কেউই। আবার খেলবেন না, খেলার কোনো সম্ভাবনা নেই, এমন কথাও মুখ থেকে বের হয়নি কারো।

তবে ক্রিকেট কমিটির সম্পাদক সেলিম শাহেদ আর সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান সাব্বিরের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সাকিবের লিগ খেলার অনুমতি মিলেছে। মানে বিসিবি থেকে তার খেলার ব্যাপারে কোন বাধা নেই।

মোহামেডান ক্রিকেট কমিটির অন্যতম শীর্ষ কর্তা সাব্বির রোববার রাতে জানিয়েছেন, সাকিবের সব কাগজপত্র তৈরি। লিগ খেলার ছাড়পত্র বা অনুমতি যাই বলেন না কেন, বোর্ডের কাছ থেকে তাও মিলেছে।

তাহলে কী সাকিব খেলবেন সোমবার? এ প্রশ্নের উত্তরে সাব্বির জানান, ‘আসলে আমরা সাকিবকে খেলার বিষয়ে কোনো রকম চাপ দিইনি। কারণ, তার শাশুড়ির অবস্থা বেশ খারাপ। ক্যানসার ফোর্থ স্টেজ। তার স্ত্রী সার্বক্ষণিকভাবে মায়ের পাশে রয়েছেন। এ রকম পরিবেশ, পরিস্থিতিতে সাকিবকে খেলার কথা বলা যায় না। আমরা তাকে খেলার ব্যাপারে কোনো পীড়াপিড়ি করিনি। সাকিবের ওপর ছেড়ে দিয়েছি।’

সাব্বিরের কথাবার্তার সারমর্ম হলো, ‘সাকিব যদি এমন কঠিন ও জটিল পরিস্থিতির ভেতরেও খেলতে চান, তাহলে খেলবেন। একই কথা বলেছেন ক্রিকেট সম্পাদক সেলিম শাহেদও। জাতীয় দলের এ সাবেক ক্রিকেটারের কথা, সাকিবের পারিবারিক অবস্থা এতটাই খারাপ যে, আমরা সাকিবকে খেলার ব্যাপারে একটি কথাও বলিনি। বলা যায় না। পুরো ব্যাপারটি অমানবিক হয়ে দেখা দেবে। তাই আমরা সাকিবকে বলিনি তুমি কি খেলবে সোমবার।’

তবে সাব্বির আর সেলিম শাহেদ দু’জনার কথায় আছে একটি আভাস, ইঙ্গিত, তাহলো- সাকিব যদি নিজ থেকে খেলতে চান, তাহলে খেলতে পারেন। সেটা আজ রাত ১১টা নাগাদও ঠিক হয়নি। বিষয়টা অনেকটা এরকম, সাকিব যদি সোমবার (২৮ মার্চ) সকালে বিকেএসপিতে গিয়ে বলেন, আমি খেলবো, তাহলে তিনি খেলবেন। এবং সাকিব নাকি সোমবার বিকেএসপিতে যেতেও পারেন। যদি সত্যিই যান, তাহলে শেখ জামালের বিপক্ষে তাকে মোহামেডানের হয়ে খেলতেও দেখা যেতে পারে।

শেষ কথা হলো, খেলা না খেলা নির্ভর করছে সাকিবের ওপর। তার ক্যানসারে আক্রান্ত অসুস্থ শাশুড়ির অবস্থা মোটেই ভালো না। তারপরও এমন অবস্থায় সাকিব যেচে যদি খেলার আগ্রহ প্রকাশ করেন, তাহলে মোহামেডান ম্যানেজমেন্ট তাকে খেলাতে এতটুকু দ্বিধা করবে না।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ২৮ মার্চ

Back to top button