দক্ষিণ এশিয়া

গুজরাটে তৈরি হলো ভারতের প্রথম ইস্পাতের রাস্তা!

গান্ধীনগর, ২৭ মার্চ – ভারতের গুজরাটে প্রথম বারের মতো তৈরি করা হয়েছে ইস্পাতের রাস্তা। ইস্পাত বলতেই আমাদের চোখে যে ছবি ভেসে ওঠে এই রাস্তা অবশ্য তেমন নয়। এখানে রাস্তা তৈরিতে যে ইস্পাত ব্যবহার করা হয়েছে তা হলো স্টিলের বর্জ্য।

পিচ ঢালা বা কংক্রিটের রাস্তা দেখেই আমরা অভ্যস্ত। তবে বর্তমান সময়ে প্রযুক্তি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, এখন রাস্তা তৈরিতে প্লাস্টিক বর্জ্যও ব্যবহার করা হচ্ছে। বিশ্ব জুড়ে প্রতি বছর লাখ লাখ টন প্লাস্টিক বর্জ্য জমছে। সেই প্লাস্টিক বর্জ্যকে পুনর্ব্যবহারযোগ্য করে বিভিন্ন কাজে লাগানো হয়। ইদানিং অনেক দেশই তা রাস্তা তৈরিতেও ব্যবহার করছে।

ইস্পাতের ক্ষেত্রেও তাই। ভারতে ইস্পাত কারখানাগুলোতে প্রতি বছর লাখ লাখ টন বর্জ্য জমতে থাকে। এই বর্জ্যগুলো যদি ব্যবহার না করা হয় তবে ইস্পাত বর্জ্যের পাহাড় তৈরি হবে। এই বর্জ্যকে কিভাবে কাজে লাগানো যায় তা নিয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু করে কেন্দ্রীয় সরকার।

সমীক্ষায় দেখা গেছে, ভারতে প্রতি বছর ইস্পাত কারখানাগুলো থেকে এক কোটি ৯০ লাখ টন বর্জ্য উৎপাদন হয়। এই বিপুল পরিমাণ বর্জ্য রাস্তা তৈরির কাজে লাগানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়। যার প্রথম ধাপ শুরু হয়েছে গুজরাটে।

ইস্পাত বর্জ্য দিয়ে তৈরি রাস্তা যেমন অনেক টেকসই হয়, তেমনই অনেক বেশি ভারও বহন করতে পারে বলে দাবি প্রকৌশলীদের। পরীক্ষামূলক ভাবে তাই বেছে নেওয়া হয়েছে গুজরাটের সুরাটের হাজারি শিল্পাঞ্চলকে। কাউন্সিল অব সায়েন্টিফিক অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ (সিএসআইআর), সেন্ট্রাল রোড রিসার্চ ইনস্টিটিউট (সিআরআরআই), স্টিল মন্ত্রণালয় এবং নীতি আয়োগের উদ্যোগে হাজারি এলাকায় ইস্পাতের রাস্তা বানানো হয়।

এটি একটি পাইলট প্রকল্প। এই প্রকল্পের অধীনে ওই এলাকায় পরীক্ষামূলক ভাবে ইস্পাত বর্জ্য দিয়ে ছয় লেনের এক কিলোমিটার রাস্তা বানানো হয়। রাস্তা তৈরিতে অন্য দ্রব্যের সঙ্গে ১০০ শতাংশ ইস্পাত ব্যবহার করা হয়েছে। বর্ষার সময় রাস্তার সবচেয়ে ক্ষতি হয়। সিএসআরআই-এর মতে, ইস্পাত দিয়ে তৈরি এই রাস্তা সেই সমস্যাও দূর করবে।

সিআরআরআই-এর বিজ্ঞানী সতীশ পাণ্ডে বলেন, গুজরাটের হাজিরা বন্দরের এক কিলোমিটার রাস্তার অবস্থা খুবই খারাপ ছিল। ভারী ট্রাক যাতায়াত করায় সেই ভার বহন করতে পারছিল না এসব রাস্তা। ফলে রাস্তার ক্ষতি হচ্ছিল। কিন্তু ইস্পাত বর্জ্য দিয়ে রাস্তা বানানোর পর দেখা গেল দিনে হাজারেরও বেশি ট্রাক কয়েক লাখ টন ওজন নিয়ে যাতায়াতের পরেও রাস্তার কোনো ক্ষতি হয়নি। যেমন বানানো হয়েছিল ঠিক তেমনই রয়েছে।

এই প্রকল্প যদি সফল হয় তবে আগামী দিনে জাতীয় সড়ক নির্মাণের ক্ষেত্রে ইস্পাত বর্জ্য ব্যবহার করার পরিকল্পনা করছে কেন্দ্রীয় সরকার।

সূত্র: জাগো নিউজ
এম ইউ/২৭ মার্চ ২০২২

Back to top button