ক্রিকেট

নান্নু-পাইলটদের ম্যাচে আম্পায়ারিং করতে পেরে রোমাঞ্চিত জেসি

ঢাকা, ২৬ মার্চ – ৫১তম স্বাধীনতা দিবসে দেশের ক্রিকেটে এক নতুন যাত্রা হলো। সাবেক ক্রিকেটারদের নিয়ে আয়োজিত স্বাধীনতা দিবস ক্রিকেটে ম্যাচ পরিচালনায় দায়িত্বে ছিলেন দুই নারী আম্পায়ার।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) আম্পায়ার্স কমিটির চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ মিঠু নতুন দায়িত্ব পেয়ে জানিয়েছিলেন নারীদের আম্পায়ারিংয়ে যুক্ত করার কথা। যেই কথা সেই কাজ। স্বাধীনতা দিবস ক্রিকেটে সাবেক নারী ক্রিকেটার সাথিরা আক্তার জেসি ও ডলি রানী সরকারকে দিয়ে শুরু হয় অনন্য এই যাত্রা।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের একাডেমি মাঠে লাল দল-সবুজ দলে ভাগ হয়ে শনিবার (২৬ মার্চ) একটি প্রীতি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেন। সেই ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন জেসি-ডলি।

মিনহাজুল আবেদীন নান্নু-মোহাম্মদ রফিকদের ম্যাচ পরিচালনা করতে পেরে রোমাঞ্চিত জেসি। ম্যাচ শেষে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে জেসি জানান তিনি নার্ভাস ছিলেন শুরুতে, ‘একটু নার্ভাস ছিলাম যে নান্নু ভাইরা খেলবে, রফিক ভাইরা খেলবে। তাদের খেলা দেখে ক্রিকেটার হয়েছি, বড় হয়েছি। তাদের ম্যাচে আম্পায়ারিং করবো এটা নিঃসন্দেহে অনেক বড় একটা ব্যাপার। রোমাঞ্চের সাথে নার্ভাসনেসও কাজ করেছিল।’

তবে মাঠে এসে যখন শুরু করেন তখন পেশাদারিত্বের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন, ‘কিন্তু যখনই মাঠে চলে এসেছি তখন আমার কাছে পুরো ব্যাপারটা পেশাদার মনে হয়েছে। খুবই ভালো লাগছে। আমার জন্য এই ম্যাচে আম্পায়ারিং করা অনেক বড় পাওয়া। আজকে শুরু হয়েছে, শুরুটা করা গুরুত্বপূর্ণ যেকোনো নতুন কিছুর।’

২০০৯ সালে আম্পায়ারিং করার জন্য কোর্স করেছিলেন জেসি। প্রায় ১৩ বছর পর দায়িত্ব পেলেন ম্যাচ পরিচালনার। তাও স্বাধীনতা দিবসে সাবেক ক্রিকেটারদের নিয়ে আয়োজিত ম্যাচে। জেসি বলেন, ‘২০০৯ সালে জাতীয় দলে থাকতেই আমি, সালমা, পান্না থেকে শুরু করে সবাই কিন্তু মোটামুটি আম্পায়ারিং কোর্সটা করেছি। আজকে ২০২২ সালে এসে আমরা কাজ করার সুযোগ পেলাম বা শুরুটা করলাম।’

মিঠু জানিয়েছেন স্কুল ক্রিকেটে নারী আম্পায়ার যুক্ত করবেন। সাধুবাদ জানিয়ে জেসি জানিয়েছেন তাহলে মেয়েরা ক্রিকেট ছাড়লে তাদের কাজের জায়গা বাড়বে। তবে জেসির দৃষ্টি অনেক দূরে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে।

‘আশা করছি ভবিষ্যতে আমরা আরও ভালো কাজ করার সুযোগ পাবো। অবশ্যই লক্ষ্য তো আছে…আপনারা দেখবেন যেহেতু মেয়েদের বিশ্বকাপ চলছে ম্যাচ রেফারি আছে, আম্পায়ার মেয়েরা আছে। এমনকি ছেলেদের ক্রিকেটেও এখন মেয়ে আম্পায়ার আছে।’

সূত্র : রাইজিংবিডি
এন এইচ, ২৬ মার্চ

Back to top button