জাতীয়

দ্রব্যমূল্য নিয়ে মন্ত্রীরা হেসে হেসে কথা বলেন : মির্জা ফখরুল

ঢাকা, ১৪ মার্চ – অতিপ্রয়োজনীয় নিত্যপণ্যের দামের ঊর্ধ্বগতির বিষয়টি আড়াল করতে সরকার জিডিপির শুভঙ্করের ফাঁকি দেখাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন,দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির ফলে দেশের মানুষের জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে। কিন্তু সরকার তা সম্পূর্ণভাবে অস্বীকার করছে। মন্ত্রীরা হেসে হেসে বলেন, আরে দাম যেমন বেড়েছে, আয়ও তো বেড়েছে।

আজ সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্বাধীনতা ফোরাম নামে একটি সংগঠনের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। গত বছর ১৬ মার্চ সিঙ্গাপুরে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে মারা যান মওদুদ।

কার আয় বেড়েছে প্রশ্ন রেখে মির্জা ফখরুল বলেন, এরা (সরকার) জিডিপির (জাতীয় প্রবৃদ্ধি হার) শুভঙ্করের ফাঁকি দেখায়। সবকিছু মিলিয়ে যেটা আসে সেটাকে জিডিপি বলে অর্থাৎ উৎপাদন থেকে যেটা আসে গ্রোথ। তারপর বলে, পার ক্যাপিটাল ইনকাম এতো হয়েছে।

মাথাপিছু আয় কীভাবে হিসাব করা হয় তার ব্যাখ্যা দিয়ে অর্থনীতির সাবেক অধ্যাপক মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ধরেন, আমি আয় করি মাসে ৫০ হাজার টাকা আর আমার ভাই আয় করে মাসে ৫ হাজার টাকা- এই দুটো কী এক? এই দুইটা মিলে যদি দুই ভাগ করেন তাহলে পার ক্যাপিটাল ইনকাম কিন্তু ওর আসবে ২৫ হাজার, আমারও আসবে ২৫ হাজার। বাস্তবে তার আয় তো ২৫ হাজার নয়।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, দেশের ৯০ ভাগ মানুষের আয় কম, আয় কম হচ্ছে। দেশের দারিদ্র শতকরা আরও দুই ভাগ বেড়েছে। এ বিষয়ে সরকার অবলীলায় মানুষকে প্রতারণা করে বোকা বানানোর চেষ্টা করে যাচ্ছে।

সংগঠনের সভাপতি আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহর সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আনোয়ারুল্লাহ চৌধুরী, বিএনপির জয়নুল আবদিন ফারুক, আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, শামীমুর রহমান শামীম, মওদুদ আহমদের সহধর্মিনী ও পল্লী কবি জসীম উদদীনের মেয়ে অধ্যাপক হাসনা মওদুদ, নিপুণ রায় চৌধুরী প্রমুখ।

সূত্র : আমাদের সময়
এন এইচ, ১৪ মার্চ

Back to top button