ইউরোপ

গোপনে জীবাণু অস্ত্র বানাচ্ছিল ইউক্রেন-আমেরিকা

মস্কো, ১০ মার্চ – আমেরিকার সহযোগিতায় জীবাণু অস্ত্র তৈরি করছিল ইউক্রেন। এমন দাবি করেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা।

তিনি বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি করেন।

জাখারোভা বলেন, “যৌথ সীমান্তের কাছে কয়েকটি গবেষণা কেন্দ্রে জীবাণু অস্ত্র তৈরির কাজ চলছিল।” এসময় ইউক্রেন সংকটের জন্য ন্যাটো দায়ী বলে তিনি আবারও ঘোষণা করেন।

রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, “রাশিয়ার বিশেষ অভিযানের কারণে ইউক্রেনের পারমাণবিক স্থাপনাগুলোর কোনো ক্ষতি হয়নি। সেগুলো স্বাভাবিকভাবেই কাজ করছে।”

রাশিয়া এর আগে বলেছে, ইউক্রেনের ৩০টি গবেষণাকেন্দ্রে জীবাণু অস্ত্র তৈরির কাজ চলছিল।

মস্কো আরও দাবি করেছে, মার্কিন অর্থায়নেই এসব অবৈধ কার্যক্রম চালাচ্ছিল ইউক্রেন সরকার। রাশিয়ার হামলার মুখে ইউক্রেন যেসব জিনিসপত্র নষ্ট করেছে সে তালিকায় গবেষণাগারগুলোও রয়েছে। বিষয়টি বর্তমানে বিকিরণ, রাসায়নিক এবং জৈবিক সুরক্ষা বিশেষজ্ঞদের মাধ্যমে বিশ্লেষণ করা হচ্ছে।

মস্কোর দাবি, যেসব নথি পাওয়া গেছে তাতে প্রমাণ করা যাবে, ইউক্রেন ও যুক্তরাষ্ট্র জাতিসংঘের জৈবিক অস্ত্র কনভেনশন লঙ্ঘন করছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইউক্রেন, রাশিয়াসহ ১৮০টিরও বেশি দেশ এ চুক্তিতে সই করেছে।

এই কনভেনশেনের প্রথম অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, কোনো পরিস্থিতিতেই জীবাণু অস্ত্র উৎপাদন, মজুদ বা এর উন্নয়ন ঘটানো যাবে না।

সূত্র : একুশে
এম এস, ১০ মার্চ

Back to top button