টলিউড

শ্রাবন্তীই সবচেয়ে চালাক : তথাগত রায়

কলকাতা, ১০ মার্চ – গত বছর বিধানসভা নির্বাচনের আগে টালিউডের প্রথম সারির তারকারা রাজনীতির রং গায়ে লাগিয়ে সেজে উঠেছিলেন। আর সেই ধারাবাহিকতায় বিজেপিতে যোগ দেন অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চ্যাটার্জি। বেহালা পশ্চিম কেন্দ্র থেকে ভোটযুদ্ধে লড়াই করে লজ্জাজনকভাবে হেরেছেন এই অভিনেত্রী। ভোটে পরাজিত হওয়ার পর থেকেই দলটির সঙ্গে বাড়তে থাকে দূরত্ব। অবশেষে বিজেপি ছাড়ার ঘোষণা দেন তিনি।

এদিকে নতুন বছরে তৃণমূলের প্রচারমঞ্চে দেখা গেছে শ্রাবন্তীকে। বহরমপুর পৌরসভার ভোটে তৃণমূলের হয়ে প্রচারে নেমেছিলেন নায়িকা। গেলো ২৩ ফেব্রুয়ারি বিকেল থেকে পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল প্রার্থী নাড়ুগোপাল মুখোপাধ্যায়, ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল প্রার্থী সুব্রত দাস এবং ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল প্রার্থী রিতা হালদারের ভোটের প্রচারের সভায় উপস্থিত ছিলেন তিনি।

সম্প্রতি বন্যপ্রাণীকে শৃঙ্খলিত করায় আইনি জটিলতায় পড়েন শ্রাবন্তী। সেই রেশ না কাটতেই এবার ফের বিজেপি নেতা তথাগত রায়ের কটাক্ষের শিকার হলেন নায়িকা। বুধবার (৯ মার্চ) বিকেলে আচমকাই শ্রাবন্তীকে উদ্দেশ্য করে নিন্দনীয় ভাষায় টুইট করেন এই বিজেপি নেতা।

টুইটারে তথাগত রায় লিখেছেন, ‘শ্রাবন্তী, সব্যসাচী দত্ত, বাবুল সুপ্রিয়, রাজীব, মুকুল, জয়প্রকাশ সকলেরই এক রুটিন। দিন তিনেক স্টেজে উঠে উচ্ছ্বাসে ভেসে যাওয়া, তারপর নিস্তরঙ্গ জীবন। এর মধ্যে শ্রাবন্তীই সবচেয়ে চালাক। যা দেবার অকাতরে দিয়েছে, যা পাবার পেয়েছে। তারপর পেশায় প্রত্যাবর্তন, বাই বাই রাজনীতি!’

অবশ্য বিজেপির এই নেতার এমন মন্তব্য নতুন নয়। বিধানসভা নির্বাচনের সময় দোলযাত্রায় মদন মিত্রের সঙ্গে চার নায়িকা (শ্রাবন্তী, পায়েল সরকার, তনুশ্রী চক্রবর্তী, পার্নো মিত্র) রং খেলেছিলেন। তখনও একই ভাবে অভিনয় পেশাকে কটাক্ষ করে নিন্দনীয় ভাষায় আক্রমণ করেছিলেন তথাগত।

এম এস, ১০ মার্চ

Back to top button