ফুটবল

ঘরের মাঠে না জিতেও কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যানসিটি

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগে বুধবার দিবাগত রাতে স্পোর্টিং সিপির মুখোমুখি হয় ম্যানচেস্টার সিটি। ইতিহাদ স্টেডিয়ামে পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা অবশ্য হারাতে পারেনি পর্তুগালের ক্লাবটিকে। গোলশূন্য ড্রয়ে শেষ হয়ে ফিরতি লেগ।

তবে লিসবনে প্রথম লেগে ৫-০ গোলে জয় পাওয়ায় দুই লেগ মিলিয়ে বড় ব্যবধানের জয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে স্কাই ব্লুজরা।

ঘরের মাঠে প্রথম লেগে সিটির কাছে উড়ে যাওয়ার পর ফিরতি লেগটি ছিল স্পোর্টিং সিপির কাছে কেবলই আনুষ্ঠানিকতার। দুই লেগ মিলিয়ে ব্যবধান বেড়ে কতো বড় হয় সেটা দেখার অপেক্ষায় ছিলেন উভয় ক্লাবের সমর্থকরা। কিন্তু আনুষ্ঠানিকতার ম্যাচে প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষ দলটির বিপক্ষে দারুণ লড়াই করেছে পর্তুগালের ক্লাবটি। পুরো ৯০ মিনিট অক্ষত রেখেছে নিজেদের জাল।

অবশ্য এই ম্যাচে নানামুখী পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছেন গার্দিওলা। তিনি কেভিন ডি ব্রুইন, রদ্রিদের বেঞ্চে বসিয়ে রাখেন। অভিষেক ঘটান তিন কিশোর ইগান রিলে, জেমস ম্যাকআটি ও লুক এমবেতের।

ম্যাচের অবশ্য বেশিরভাগ নিয়ন্ত্রণ সিটির কাছেই ছিল। ১৪টি আক্রমণও শানিয়েছিল তারা। তার মধ্যে ৪টি ছিল অন টার্গেটে। কিন্তু কোনোটিই জালে জড়ায়নি। ৭টি কর্নার পেয়েছিল স্বাগতিকরা। সেগুলো থেকেও কোনো সুবিধা আদায় করে নিতে পারেনি।

প্রথমার্ধে রহিম স্টার্লিং দুটো দারুণ সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু কাজে লাগাতে পারেননি। বিরতির পর অবশ্য রিয়াদ মাহরেজের পাস থেকে গ্যাব্রিয়েল জেসাস বল জালে জড়িয়েছিলেন। কিন্তু ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির (ভিএআর) সহায়তায় দেখা যায় তিনি অফসাইড ছিলেন।

শেষ পর্যন্ত গোলশূন্যভাবেই শেষ হয় ম্যাচটি। তাতে কি? প্রথম লেগের বড় জয়ে ভর করে ম্যানচেস্টার সিটি যে পৌঁছে গেছে শেষ আটে।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এন এইচ, ১০ মার্চ

Back to top button