ঢালিউড

সুচরিতার সেই মন্তব্য নিয়ে এবার মুখ খুললেন নিপুণ

ঢাকা, ০৭ মার্চ – বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদকের পদ নিয়ে আলোচিত ঘটনাটি থামছেই না। এ যেন শেষ হয়েও হলো না শেষ। ফলাফল নিয়ে সাধারণ সম্পাদক পদের আইনি লড়াই চলছে তো চলছেই। শেষবার হেরে গিয়ে চিত্রনায়িকা নিপুণ বাদ পড়েন এবং তার প্রতিদ্বন্দ্বী চিত্রনায়ক জায়েদ খানই ফিরে পান সাধারণ সম্পাদকের চেয়ার।

নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খানের প্রার্থিতা বৈধ উল্লেখ করে গত বুধবার (২ মার্চ) রায় দেন হাইকোর্ট। তবে হাইকোর্টের এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবেন বলে জানিয়েছিলেন নিপুণ।

সেই ধারাবাহিকতায় নিপুণের করা আপিলে জায়েদ খানকে শিল্পী সমিতির সম্পাদক ঘোষণা করে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশ সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার আদালত চার সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেছেন।

রোববার (৬ মার্চ) শুনানি শেষে এ আদেশ দিয়েছেন বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের একক বেঞ্চ। এদিকে সুপ্রিম কোর্টের এ আদেশে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন চিত্রনায়িকা নিপুণ।

এ নিয়ে গত রোববার সন্ধ্যার পর এফডিসিতে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন নিপুণ। সেখানে তিনি নানা দিক নিয়ে কথা বলার সময় তাকে নিয়ে চিত্রনায়িকা সুচরিতার বলা এক বক্তব্যের পাল্টা জবাব দিয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের সামনে তিনি বলেন, ‘চিত্রনায়িকা সুচরিতা আপা হচ্ছেন আমার বড় বোনের মতো। এখনও মনে আছে আমার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্রে তিনি মায়ের চরিত্রে অভিনয় করেন। এ ক্ষেত্রে অনেকসময় দেখা যায় সিনিয়রা রাগে কিংবা অন্য কোনো কারণে অনেক কিছুই মুখ ফসকে বলে ফেলেন। তাতে খুব বেশি একটা নেতিবাচক প্রভাব পরে না। কারণ, উনি তো আর আমার প্যানেলের কেউ নন। উনি নিজেই একটি প্যানেলে আছেন। তিনি স্বাধীনভাবেই যে কাউকে সাপোর্ট করবেন, এটাই স্বাভাবিক। তবে যখন কথাগুলো কোড করে গণমাধ্যমে প্রচার হয়, তখন আসলে এটা চলচ্চিত্রের প্রকৃত শিল্পীদের নিয়ে মানুষের বাজে ধারণা তৈরি হয়। এটা থেকে বিরত থাকাই শ্রেয়।’

প্রসঙ্গত, সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে বলতে ২ মার্চ তিনি নিপুণ সম্পর্কে বলেন, চিত্রনায়িকা! তিনি নায়িকা হিসেবে তো কোনো ভিতই গড়তে পারেননি এখনও। আবার সমিতি চালাবে। কী সমিতি চালাবে, সে কী জানে সমিতির?

তার পেছনে কতগুলা আছে, কাম নাই কাজ নাই, কি করি খই ভাজ। ওই অবস্থা হইছে এখন চলচ্চিত্র জগতের। শুটিং নাই… ফুটিং নাই একটা কিছু করে খেতে হবে তো। মাগো, পাগল হয়ে গেলাম। এখন ইন্ডাস্ট্রিতে থাকব কি না, এটা সন্দেহ আছে।

এম এস, ০৭ মার্চ

Back to top button