ব্যবসা

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনার পরেই পুঁজিবাজারে বড় পতন

ঢাকা, ০৭ মার্চ – আগের কার্যদিবসের ধারাবাহিকতায় আজ সপ্তাহের ২য় কার্যদিবসেও বড় পতন হয়েছে পুঁজিবাজারে। গত দুই দিনে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জর(ডিএসই) প্রধান সূচক কমেছে ২৪০ পয়েন্ট।

সোমবার শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ৯৬ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারদর কমেছে। তবে সেল প্রেসার থাকার কারণে পুঁজিবাজারে লেনদেন কিছুটা বেড়েছে। আর প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমে সাত মাস আগের অবস্থানে নেমে গেছে।

আজ ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৮২.১২ পয়েন্ট বা ২.৭৪ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৪৫৬.৫১ পয়েন্টে। ডিএসইতে আজকে পতনের মাধ্যমে এই সূচকটি সাত মাস ৮ দিন বা ১৫০ কার্যদিবস আগের অবস্থানে নেমে গেছে।

এর আগে ২০২১ সালের ২৯ জুলাই সূচকটি আজকের চেয়ে নিচে অর্থাৎ ৬ হাজার ৪২৫ পয়েন্টে অবস্থান করছিল। ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৩৬.৬১ পয়েন্ট বা ২.৫৫ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৬৪.৫৪ পয়েন্ট বা ২.৬৪ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৩৯৪.৪০ পয়েন্টে এবং দুই হাজার ৩৭৪.৩৯ পয়েন্টে।

ডিএসইতে আজ টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ৭৪০ কোটি ২৬ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট। যা আগের দিন থেকে ৯৫ কোটি ৭১ লাখ টাকা বেশি। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৬৪৪ কোটি ৫৫ লাখ টাকার।

ডিএসইতে আজ ৩৭৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৭টির বা ১.৮৫ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। দর কমেছে ৩৬৪টির বা ৯৬.০৪ শতাংশের এবং ৮টি বা ২.১১ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) আজ ২০ কোটি ৭১ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সম্প্রতি পুঁজিবাজারে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর বিনিয়োগ নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের একটি নির্দেশনা জারি হয়। এর পর থেকেই বাজারে ব্যাংকগুলো বিনিয়োগ বিমুখ হয়েছেন।

প্রসঙ্গত, ১৫ ফ্রেব্রুয়ারি বাংলাদেশ ব্যাংক পুঁজিবাজারে ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগের ব্যাপারে একটি সার্কুলার জারি করে। এর পর থেকেই দেশের পুঁজিবাজারে অস্থিরতা বিরাজ করছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছিলো, আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ধারণকৃত পুঁজিবাজারের সকল প্রকার শেয়ার, ডিবেঞ্চার, কর্পোরেট বন্ড, মিউচুয়াল ফান্ড ইউনিট এবং অন্যান্য নিদর্শনপত্রের বাজার মূল্য পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ হিসেবে গণ্য হবে।

১৫ ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সার্কুলার জারির পর ডিএসই ইনডেক্স কমেছে ৫৮৭ দশমিক ১৮ পয়েন্ট।

ডিএসই ওয়েবসাইটে প্রদত্ত তথ্য অনুযায়ী, ১৬ ফেব্রুয়ারি ডিএিসই ইনডেক্সের অবস্থান ছিলো ৭ হাজার ৪৩ দশমিক ৬৯ পয়েন্ট। আজকের বাজার শেষে এই সূচকটির অবস্থান করছিলো ৬ হাজার ৪৫৬ দশমিক ৫১ পয়েন্টে।

এ ব্যাপারে রশিদ ইনভেস্টমেন্ট সার্ভিসেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আহমেদ রশিদ বলেন, সম্প্রতি বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকার বন্ড এসেছে। ব্যাংকগুলোই এই বন্ডগুলোর বড় ক্রেতা। বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্কুলারে পুঁজিবাজারে ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগসীমায় বন্ডের অর্ন্তভুক্তি এবং এক্সপোজার লিমেটের ক্ষেত্রে ক্রয়মূল্যকে বিবেচনায় না এনে বাজারমূল্যকে বিবেচনা করার ফলে ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগসীমা সীমিত হয়ে পড়েছে। এমতাবস্থায় অন্যান্য বড় বিনিয়োগকারীরাও বাজারে বিনিয়োগে আগ্রহী হচ্ছেন না। যার পরিপ্রেক্ষিতে এই পতন।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ০৭ মার্চ

Back to top button