এশিয়া

নতুন বছরে প্রথম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা উত্তর কোরিয়ার

 

 

পিয়ংইয়ং, ০৫ মার্চ – রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে যুদ্ধ চলছে। অন্যদিকে সিউলের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের বাকি মাত্র কয়েকদিন। এমন পরিস্থিতির মধ্যেই উত্তর কোরিয়া সন্দেহজনক ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে। দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপান এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছে। কাতারভিত্তিক সাংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

শনিবার জাপানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী নোবুও কিশি বলেন, ক্ষেপণাস্ত্রটি ৫৫০ কিলোমিটার উচ্চতায় (৩৪০ মাইল) ও ৩০০ কিলোমিটার দূরত্বে (১৭০ মাইল) নিক্ষেপ করা হয়েছে। দেশটির ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা এ অঞ্চলের নিরাপত্তার জন্য হুমকি ও এটা একেবারেই অগ্রহণযোগ্য বলেও দাবি করেন তিনি।

দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, সুনান এলাকা থেকে পূর্ব সাগরে উৎক্ষেপণ করা একটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র শনাক্ত করেছে তারা।

হাইপারসনিক থেকে মাঝারিপাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে পিয়ংইয়ং। তবে এটিকে উপগ্রহ এর একটি উপাদান বলে দাবি করেছে উত্তর কোরিয়া। যদিও সিউল এটিকে আরেকটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র হিসেবে অভিহিত করেছে।

জানা গেছে, আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও পারমাণবিক অস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। দেশটি এ বিষয়ে কোনো ধরনের আলোচনায়ও বসতে রাজি নয়।

এদিকে ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা গড়ালো দশম দিনে। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি দেশটিতে সামরিক অভিযান শুরু করে প্রেসিডেন্ট পুতিন সরকারের নিরাপত্তা বাহিনী। শত্রু সেনাদের প্রতিহত করতে ঝাঁপিয়ে পড়ে ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির নিরাপত্তা বাহিনীও। দুপক্ষের মধ্যে তীব্র লড়াই চলছে এখনো। এরই মধ্যে এ যুদ্ধের প্রভাব পড়ছে বিশ্ব অর্থনীতিতে।

সূত্র: জাগো নিউজ
এম ইউ/০৫ মার্চ ২০২২

Back to top button