ঢালিউড

এফডিসিতে এসে নোংরামি করা লোকদের হুঁশিয়ারি দিলেন ডিপজল

ঢাকা, ০৩ মার্চ – অনেক কাদা ছোড়াছুড়ি হয়েছে। আর কাদা ছোড়াছুড়ি চাই না। এক নির্বাচন নিয়ে যে সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে, তাতে আমাদের শিল্পীদের মান-সম্মান বলতে কিছু থাকছে না। এখন আদালতের রায় মেনে নিতে হবে। পরস্পরকে সহযোগিতা করতে হবে। শিল্পীদের মাঝে বিভাজন থাকা ভালো নয়। এর অবসান এখনই করতে হবে। এ নিয়ে আর কোনো কথা বাড়ানো উচিত নয়, বলে জানিয়েছেন চলচ্চিত্রের মুভিলর্ড খ্যাত মনোয়ার হোসেন ডিপজল।

নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার ১ মাস ৪ দিন পর বৃহস্পতিবার (৩ মার্চ) এফডিসিতে হাজির হয়ে তিনি বলেন, ‘শিল্পী সমিতির নির্বাচন ঘিরে অনেক নোংরামি হয়েছে আর নয়। এফডিসিতে কেন বহিরাগত আসবে? প্রথমবার দেখলাম এফডিসিতে এত বহিরাগত। কে এনেছে? কেন এনেছে? কার এত বড় সাহস বহিরাগত আনার? লোক আনলেই সবকিছু? এত সহজ না।’

এ সময় চলচ্চিত্রে ১৮ সংগঠন বলে কিছু নেই উল্লেখ করে ডিপজল বলেন, ‘কেন জায়েদকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করবে? ওর অন্যায় কী? বললেই সব হয়ে গেল। আমাদের মাদার সংগঠন প্রযোজক সমিতি। সেই সমিতিই দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ। আছে পরিচালক সমিতি। সেই সমিতির সভাপতিই তো হাত তুলে জয় করায়। তাকেই রেড কার্ড দেখানো হয়েছে। যে সমিতির সভাপতি হাত তুলে জয় ঘোষণা করেন তাকে আগে অবাঞ্ছিত করা উচিত ছিল। তিনি অন্যায় করেছেন।’

 

শক্তিমান এই অভিনেতা আরও বলেন, ‘তিনি (সোহানুর রহমান সোহান) সংবিধানের কিছু জানেও না, বুঝেও না। হয়তো তিনি কিছু পেয়েছেন তাই এভাবে বলেছেন। তিনি কেন এমন বলবেন? ফিল্মে অনেক লোক আছে তিনি কিছু না। তার চেয়ে অনেক মাথা আছে৷ এই নোংরামি বন্ধ করা উচিত। যারা নোংরামি করছেন তাদের সবাইকে আমরা ধরব। তারা কেন এই নোংরামি করেছে তার জবাব দিতে হবে।’

কারও নাম উচ্চারণ না করে ইঙ্গিত দিয়ে তিনি বলেন, ‘একজন আছেন সিনেমা হলের মালিক, তিনি বিরাট নেতা। তিনি নিজেকে যত বড় নেতাই মনে করুক না কেন তিনি জিরো। সবাই সাবধান হয়ে যান এটা নিয়ে আর মাতামাতি করবেন না। খারাপ পরিহার করে ভালো কাজে যুক্ত হন। এ দেশে এখনো আইন আছে। যারা এখনো অন্যায় কাজ থেকে সরে আসেনি তারা সরে আসুন। আদালত যাকে রায় দেবে সেই দায়িত্ব পালন করবে।’

সবাইকে অনুরোধ করে ডিপজল বলেন, ‘ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি ডুবে যাচ্ছে। এই অবস্থার কীভাবে উত্তরণ করা যায়, সবাই সেই চিন্তা করুন। সব নোংরামি বাদ দিয়ে আসুন ফিল্মের উন্নয়নে কাজ করি। আর নোংরামি চাই না। সবাই একত্র হয়ে কাজ করে এগিয়ে নিয়ে যাব আমাদের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি।’

এম এস, ০৩ মার্চ

Back to top button