ইউরোপ

রাশিয়ার ট্যাংকের অগ্রযাত্রা থামিয়ে দিল নিরস্ত্র জনতা (ভিডিও)

কিয়েভ, ২৭ ফেব্রুয়ারি – রাশিয়ার সামরিক বাহিনীর একাধিক ট্যাংক এগিয়ে আসছে। আর সেই ট্যাংক বহরের দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন শত শত নিরস্ত্র ইউক্রেনীয় জনগণ। কোনো উত্তেজনা নেই, সকলেই শান্ত। কারো হাতে কোনো অস্ত্র নেই। শান্তিকামী সাধারণ জনতার এমনভাবে এগিয়ে আসা দেখে একে একে থেমে গেল সব রুশ ট্যাংক। এমন ঘটনা ঘটেছে রাশিয়ার আগ্রাসনে বিধ্বস্ত ইউক্রেনের চেরনিহিভ অঞ্চলের একটি শহরে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত একটি ভিডিওতে দেখা যায়, ইউক্রেনের চেরনিহিভ অঞ্চলের করই করিউকিভকা শহরের রাস্তায় এগিয়ে আসছে রাশিয়ান ট্যাংক বহর। দলবেধে এগিয়ে গিয়ে সেই ট্যাংক বহরের অগ্রযাত্রা থামিয়ে দিলেন শত শত সাধারণ মানুষ।

এ সময় রুশ সৈন্যরাও সাধারণ ইউক্রেনীয়দের বিরুদ্ধে কোনো ধরনের প্রতিক্রিয়া দেখায়নি। স্থানীয় একটি গণমাধ্যম টুইটারে সেই ঘটনার ভিডিও টুইট করে লিখেছে, রাশিয়ার ফ্যাসিবাদীদের থামিয়ে দিয়েছেন ইউক্রেনের জনগণ। নিজেদের শহরে রুশ হানাদারদের ঢুকতে দেয়নি তারা।

এদিকে, আগ্রাসনের চতুর্থ দিনে এসে রাশিয়ার সামরিক বাহিনী ইউক্রেনের বিভিন্ন শহরে হামলা জোরদার করেছে। ইতোমধ্যে নোভা কাখোভকা নামে দেশটির কৌশলগত গুরুত্বপূর্ণ একটি শহর দখলে নিয়েছে রুশ সৈন্যরা।

নিউ কাখোভকা নামেও পরিচিত এই শহরটি ছোট হলেও কৌশলগতভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কাখোভকা শহরটি দিনিপার নদীর তীরে অবস্থিত এবং এই নদীটি পানি পথে সরাসরি ক্রিমিয়া উপদ্বীপের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট।

এছাড়া ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলে অবস্থিত খেরসন শহর এবং দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত বারদিয়ানস্ক শহর রুশ সেনারা পুরোপুরি অবরোধ করেছে বলে দাবি করেছে মস্কো।

অন্যদিকে, সংঘাতের অবসানে ইউক্রেনের সাথে আলোচনার জন্য রাশিয়ার পাঠানো প্রতিনিধিদের একটি দল বেলারুশে পৌঁছেছে বলে জানিয়েছে মস্কো। কিন্তু ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি রাশিয়ার আলোচনার এই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন।

তিনি বলেছেন, রাশিয়া যদি বেলারুশ ভূখণ্ড থেকে ইউক্রেনে হামলা বন্ধ করে তবে মিনস্কে আলোচনা সম্ভব হতে পারে। এছাড়া এই সংকটের সমাধানে অন্যান্য স্থানে আলোচনার দরজা খোলা রয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলেনস্কি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ইউক্রেনে আক্রমণের আগে রাশিয়া বেলারুশে কয়েক হাজার সৈন্য জড়ো করেছিল এবং দেশটিকে ইউক্রেনে আক্রমণের জন্য মঞ্চ হিসেবে ব্যবহার করছে।

সূত্র: দেশ রূপান্তর
এম ইউ/২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২

Back to top button