বরগুনা

বরগুনার সেই তিন বোনকে জমি বুঝিয়ে দিলেন পুলিশ সুপার

বরগুনা, ২৪ ফেব্রুয়ারি – দখল হয়ে যাওয়া নিজেদের জমি-জমা ও বসতবাড়ি ফিরে পেতে কাফন পরে বরগুনা জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বরে অনশনে বসেন তিন বোন। জমি ফিরে না পাওয়া পর্যন্ত আমরণ অনশনের ঘোষণা দেন তারা। খবর পেয়ে বরগুনার পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর মল্লিক সেখানে গিয়ে তাদের বুঝিয়ে অনশন ভাঙান। পরে তিনি তিন বোনকে নিয়ে বামনা উপজেলায় তাদের গ্রামের বাড়িতে গিয়ে যান এবং বাবার জমি ও বাড়ি বুঝিয়ে দেন।

গতকাল বুধবার সকালে বরগুনা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের চত্বরে অনশনে বসেন তিন বোন। তারা হলেন উপজেলা বামনার গোলাঘাটা গ্রামের মৃত আবদুল রশীদের মেয়ে রুবি আক্তার, জেসমিন আক্তার ও মোসা. রোজিনা।

জানা গেছে, মা-বাবা মারা যাওয়ার পর ছোট দুই বোনকে নিয়ে চট্রগ্রামে চলে যান রুবি। সেখানে একটি পোশাক কারখানায় চাকরি নিয়ে দুই বোনকে লেখাপড়া করান তিনি। ২০১৯ সালে নিজ বাড়িতে ফিরে দেখেন তাদের পৈতৃক সম্পত্তি দখল করে নিয়েছেন এলাকার প্রভাবশালীরা। এমনকি তাদের বসতঘর থেকেও বের করে দেওয়া হয়। এরপর থেকে মানবেতর জীবন যাপন করছিলেন এই তিন বোন।

পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর মল্লিক বলেন, মানবিক কারণে এই তিন বোনের পাশে দাঁড়িয়েছি। তাদের ন্যায্য হিৎসা বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। জেলা পুলিশের অর্থায়নে তাদের থাকার জন্য কয়েকদিনের মধ্যেই একটি ঘর তুলে দেওয়া হবে।

বামনা উপজেলা চেয়ারম্যান সাইতুল ইসলাম লিটু বলেন, ‘অসহায় তিন বোনের অভিভাবক এখন আমরা। তাদের জমিটি যেহেতু নিচু; তা ভরাটসহ প্রয়োজনীয় সহায়তা দেওয়া হবে।’

সূত্র : আমাদের সময়
এন এইচ, ২৪ ফেব্রুয়ারি

Back to top button