সংগীত

বাপ্পির সঙ্গে ঋতুপর্ণার গাওয়া শেষ গান ভাইরাল (ভিডিও)

মুম্বাই, ১৬ ফেব্রুয়ারি – মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে ৬৯ বছর বয়সে মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী বাপ্পি লাহিড়ী। সংবাদ সংস্থা পিটিআই এ খবর নিশ্চিত করেছে।

পিটিআই সূত্রে আরও জানা যায়, মৃত্যুর আগে একমাস ধরে হাসপাতালটিতে ভর্তি ছিলেন এই গুণী শিল্পী। তার কিছু শারীরিক জটিলতার কারণে হাসপাতালে চিকিৎসা চলছিল। মধ্যরাতের কিছুক্ষণ আগে অবস্ট্রাকটিভ স্লিপ অ্যাপনিয়ায় (ওএসএ) তার মৃত্যু হয়। বহু কালজয়ী গানের গীতিকার, সুরকার ও কণ্ঠশিল্পী তিনি।

অসুস্থ হবার আগে দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্র ঋতুপর্ণ ঘোষের সঙ্গে একটি ডুয়েট গানের রেকর্ডিং করেছিলেন তিনি। তাদের গাওয়া সেই গানটি এখন নেটদুনিয়ায় ভাইরাল।

বাপ্পি লাহিড়ীর এই অকাল মৃত্যু ঋতুপর্ণা কোন ভাবেই মেনে নিতে পারছেন না। এমন হঠাৎ মৃত্যুতে ঋতুপর্ণা বলেন, বাপ্পিদা নেই, আমি ভাবতেই পারছি না। কিছু বলার মত অবস্থায় নেই। শুধু এটুকুই বলতে পারি যে আমাদের সঙ্গীত জগত একেবারে শূন্য হয়ে গেল। এত স্নেহ, আদর, এত ভালোবাসা আমি জানি না কেউ দিতে পারে কিনা। বাপ্পিদা আমার পরিবারের একজন। পরম আত্মীয় চলে গেল আমাদের। কিছুদিন আগে আমাকে নিজে ডেকে বলল, তোকে গান গাইতেই হবে। তুই আয়। আমি নিজে রেকর্ড করব তোর সাথে। আমি বললাম, বাপ্পিদা আমি পারব না। বললেন, না তুই পারবি। তুই আয়। আমাকে গানের লিরিকস একটা একটা করে বোঝালেন। আমাকে শোনালেন। আমি বললাম যে, আমি পারব না বাপ্পিদা। না, তুই পারবি, তুই কর। ছোটবেলা থেকে বাপ্পিদাকে জানি, চিনি। বাপিদার পরিবারের সঙ্গে আমাদের ভীষণ সখ্যতা। আমার পরিবারের এক দাদা চলে গেল। বাপিদা, আমাদের দাদা চলে গেল। হাউ হাউ করে কাঁদতে কাঁদতে বললেন তিনি।

বাপ্পি লাহিড়ীকে শ্রদ্ধা জানিয়ে টুইটও করেছেন ঋতুপর্ণা। সহাস্য ‘বাপ্পিদা’র সঙ্গে একটি ছবি শেয়ার করে ঋতুপর্ণা লিখেছেন, ‘বড় ভাইকে হারালাম। তোমার মত একজন গাইড পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। আমার মন ভেঙেচুরে গিয়েছে। আমি আমার পরিবারের একজনকে হারালাম। সারা পৃথিবীর কাছে তুমি অনুপ্রেরণা। তুমি বিশ্বাস, সাহস ও শক্তির প্রতিমূর্তি। তোমাকে কখনও ভুলব না। বাপ্পিদা তুমি সবসময় আমাদের সঙ্গে থাকবে।’

প্রসঙ্গত, ১৯৭০ থেকে ৮০-এর দশকে হিন্দি ছায়াছবির জগতে অন্যতম জনপ্রিয় নাম বাপ্পি লাহিড়ী। হিন্দিতে ‘ডিস্কো ডান্সার’, ‘চলতে চলতে’, ‘শরাবি’, বাংলায় অমর সঙ্গী, আশা ও ভালোবাসা, আমার তুমি, অমর প্রেম প্রভৃতি ছবিতে সুর দিয়েছেন। গেয়েছেন একাধিক গান। ২০২০ সালে তার শেষ গান ছিল ‘বাগি-৩’র জন্য। কিশোর কুমার ছিলেন বাপ্পির সম্পর্কে মামা। বাবা অপরেশ লাহিড়ি ও মা বাঁশরী লাহিড়ি দু’জনেই সংগীত জগতের মানুষ। ফলে একমাত্র সন্তান বাপ্পি ছোটবেলা থেকেই গানের প্রতি আকৃষ্ট ছিলেন। মা-বাবার কাছেই পান প্রথম গানের তালিম।

এম এস, ১৬ ফেব্রুয়ারি

Back to top button