এশিয়া

যুদ্ধের মহড়ার মধ্যে রুশ কূটনীতির প্রশংসায় পুতিন

মস্কো, ১১ ফেব্রুয়ারি – রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তার দেশের কূটনীতিকদের প্রশংসা করেছেন। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে পুতিন বলেন, তার বিশ্বাস রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিশ্ব দরবারে দেশের ‘অবস্থান শক্তিশালী’ করবে।

তবে সেইসঙ্গে তিনি বৈশ্বিক উত্তেজনা বৃদ্ধির বিষয়েও সতর্ক করেন।

এমন এক সময় পুতিন এসব মন্তব্য করলেন, যখন রাশিয়া ও বেলারুশ ১০ দিনের সামরিক মহড়া শুরু করেছে। একই সময়ে ইউক্রেনের সেনাবাহিনীও একটি মহড়া দিচ্ছে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করেন, রুশ মহড়ার জবাবে ইউক্রেন এ পাল্টা মহড়া দিচ্ছে।

বৃহস্পতিবার আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন ঠেকাতে যে কূটনৈতিক চেষ্টা করা হচ্ছে, দুই দেশের এসব পদক্ষেপ সেটিকে নড়বড়ে করে দিয়েছে।

ইউক্রেন সংকটের মধ্যে বৃহস্পতিবারই মস্কোতে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সারগেই লাভরভের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ট্রাস।

কেমন ছিল দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এ বৈঠক? সেখানে কি কোনো সমঝোতার আভাস এসেছে? রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য সে ইঙ্গিত দিচ্ছে না।

ওই বৈঠক প্রসঙ্গে লাভরভ বলেন, ব্রিটিশ প্রতিনিধিরা কোনো ধরনের প্রস্তুতি ছাড়াই এসেছেন।

গত বছরের শেষদিকে ইউক্রেন সীমান্তে এক লাখের বেশি সেনা মোতায়েন করে রাশিয়া। যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের মিত্র দেশগুলোর দাবি, ইউক্রেনে একটি আগ্রাসন চালাতেই রাশিয়া এ সেনা সমাবেশ ঘটিয়েছে।

তবে রাশিয়া বরাবরই এ দাবি অস্বীকার করে আসছে। তারা বলছে, ইউক্রেনে আগ্রাসন চালানোর কোনো পরিকল্পনা তাদের নেই।

এর আগে পুতিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে রাশিয়াকে জোর করে ইউক্রেনে যুদ্ধে নামানোর চেষ্টার অভিযোগ তুলেন।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ১১ ফেব্রুয়ারি

Back to top button