জানা-অজানা

ওমিক্রন শনাক্তের পর বিশ্বে ৫ লাখ মৃত্যুর বিশ্ব রেকর্ড

গত নভেম্বরের শুরুতে দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হয় করোনা ভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন। ওই মাসের শেষ দিকে দেশটি আনুষ্ঠানিকভাবে ওমিক্রন শনাক্তের কথা ঘোষণা করে।

পরে এক মাসের মধ্যে ভাইরাসের নতুন ধরনটি বিশ্বের শতাধিক দেশে ছড়িয়ে পড়ে। মনে করা হতো, এটি করোনার অন্য ধরনগুলো থেকে কম প্রাণঘাতি।

কিন্তু বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) বলছে ভিন্ন কথা। তারা বলছে, করোনার ধরন ওমিক্রন শনাক্ত হওয়ার পর থেকে তা এ পর্যন্ত ৫ লাখের বেশি মানুষের প্রাণ গেছে।

মঙ্গলবার হু-এর কর্মকর্তা (ইনসিডেন্ট ম্যানেজার) আব্দি মাহামুদ বলেন, নভেম্বরের শেষদিকে ওমিক্রনকে ‘ভ্যারিয়েন্ট অব কনসার্ন’ ঘোষণা করার পর থেকে বিশ্বব্যাপী করোনায় মৃত্যু রেকর্ড করা হয়েছে ৫ লাখের বেশি; করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৩ কোটি মানুষের।

ওমিক্রন দ্রুত সময়ের মধ্যেই বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী ধরন হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। কারণ, এটি সবচেয়ে সংক্রামক, যদিও এটাকে অন্য ধরনগুলোর চেয়ে কম মারাত্মক বলে মনে করা হয়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরাসরি এসে মাহামুদ বলেন, ‘কার্যকর টিকার এ যুগে অর্ধ মিলিয়ন (৫ লাখ) লোক মারা যাচ্ছেন। এটা আসলেই একটা কিছু।’

তিনি বলেন, ‘যখন সবাই বলছেন যে, ওমিক্রন অপেক্ষাকৃত কম মারাত্মক, তারা একটা বিষয় খেয়াল করছেন না যে, এটি শনাক্ত হওয়ার পর থেকে বিশ্বে ৫ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে।’

এম ইউ/০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২২

Back to top button