বলিউড

যে কারণে লতাকে শ্রদ্ধা জানাতে হাজির ছিলেন না ধর্মেন্দ্র

মুম্বাই, ০৯ ফেব্রুয়ারি – উপমহাদেশের কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী লতা মঙ্গেশকরের শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বলিউডের নামিদামি তারকা, সংগীতশিল্পী, গীতিকার, ক্রিকেটার ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা।

লতার মরদেহের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানাতে মুম্বাইয়ের শিবাজি পার্কে হাজির হয়েছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও।

আরো উপস্থিত ছিলেন আমির খান, শাহরুখ খান, বিদ্যা বালন, রণবীর কাপুর, গীতিকার জাভেদ আখতার, লিটল মাস্টার শচীন টেন্ডুলকারের মতো তারকারা।

কিন্তু শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে দেখা যায়নি বলিউডের এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেতা ধর্মেন্দ্র দেওলকে।

সুরসম্রাজ্ঞীর প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানাতে কেন তিনি হাজির হননি তার কারণ জানিয়েছেন এ অভিনেতা।

‘শোলে’ খ্যাত তারকা জানিয়েছেন, তিন বার চেষ্টা করেও সফল হতে পারেননি তিনি।

বলিউডের বর্ষীয়ান তারকা জানিয়েছেন, ‘আমি আসলে লতা মঙ্গেশকরকে ওই অবস্থায় দেখার সাহস জোগাতে পারিনি। তিন বার যাওয়ার জন্য তৈরি হয়েছিলাম। কিন্তু বাড়ি থেকে বের হতে পারিনি। উনার চলে যাওয়াটা মেনে নিতে পারিনি। যখন থেকে খবরটা শুনেছি খুব অস্বস্তি, অসহায় লাগছিল।’

এর পর স্মৃতিচারণ করে ৮৬ বছর বয়সি অভিনেতা বলেন, ‘লতা দিদির সঙ্গে আমার খুব ভাল সম্পর্ক ছিল। সম্প্রতি কথাও হয়েছিল। আমার মনে আছে, আমার একটা বিষন্ন টুইট দেখেই তড়িঘড়ি করে তিনি আমাকে ফোন করে জানতে চেয়েছিলেন যে, আমি ঠিক আছি কি না? সেদিন আমার মন ভালো করার জন্য আধঘণ্টা ফোনে কথা বলেন লতাদিদি।’

ধর্মেন্দ্র জানান, প্রয়াত গায়িকা তাকে সবসময় উপহার পাঠাতেন এবং সব সময় মনে শক্তি যোগানোর অনুপ্রেরণামূলক বার্তা পাঠাতেন।

গত রোববার মুম্বাইয়ের ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে ৯২ বছর বয়সে মারা যান লতা মঙ্গেশকর।

লতার মৃত্যুতে শোক জানিয়ে সেদিন ধর্মেন্দ্র টুইটারে লেখেন, ‘গোটা পৃথিবী আজ শোকে, বিশ্বাস হচ্ছে না আপনি আমাদের ছেড়ে চলে গিয়েছেন!!! আমরা আপনাকে মিস করব লতাজি। আপনার আত্মার শান্তি প্রার্থনা করছি।’

এন এইচ, ০৯ ফেব্রুয়ারি

Back to top button