পশ্চিমবঙ্গ

সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ ও রাজনৈতিক বিরোধের জেরেই খুন বিজেপি কর্মী, গ্রেফতার ৩

কলকাতা, ০৯ ফেব্রুয়ারি – ভোট পরবর্তী হিংসা তদন্তে দ্রুত গতিতে এগোচ্ছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। যত সময় এগোচ্ছে ততই জাল গুটিয়ে আনছে তারা। পশ্চিম মেদিনীপুরের সবং-এ বিজেপি কর্মী বিশ্বজিৎ মাহেশের খুনের ঘটনায় এ বার ৫ অভিযুক্তের মধ্যে ৩ জনকে গ্রেফতার করেল সিবিআই। মঙ্গলবার, শিবানী মাহেশ, অলকা মাহেশ, শুভজিৎ শেখর মাহেশ নামে তিন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছেন তদন্তকারীরা। সিবিআই সূত্রে খবর, নির্বাচনের ফল ঘোষণার পরেই নিহত হন বিশ্বজিৎ। সম্পত্তি নিয়ে পারিবারিক বিবাদ তো ছিলই, পরবর্তীতে যোগ হয় রাজনৈতিক বিরোধও। দুইয়ের জেরে খুন হন বিশ্বজিৎ। গত ৯ নভেম্বর একটি এফআইআর এই মর্মে দায়ের করে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। পরবর্তীতে কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ মতো তদন্তও শুরু করে সিবিআইয়ের একটি বিশেষ প্রতিনিধি দল।

একুশের নির্বাচনের ফলপ্রকাশের পর গত ৪ মে সবংয়ে বিশ্বজিৎ খুন হন। সবং থানা এলাকায় ওই বিজেপি সমর্থককে লোহার রড, শাবল দিয়ে ব্যাপক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। আচমকা হামলায় নিজেকে বাঁচাতে পারেননি বিশ্বজিৎ। এলোপাথাড়ি মারধরে ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়। সেইসময় ক্ষেতের কাজে গিয়েছিলেন তিনি। বিশ্বজিতের মৃত্যুর পর তাঁর মৃতদেহ স্থানীয় গোপাল বর্মণের পুকুরে ফেলে দেওয়া হয়। পরেরদিন অর্থাৎ ৫ মে দেহ উদ্ধারের পরেই খবর দেওয়া হয় থানায়।

তদন্তে নামে সবং থানার পুলিশ। দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়। এরপর নভেম্বর মাসে এই ঘটনার খোঁজ খবর করা শুরু করে সিবিআই। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট খতিয়ে দেখার পর কেন্দ্রীয় তদন্তকারী গোয়েন্দা সংস্থা মনে করে, এই কেসটি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করতে হবে। নভেম্বর মাসে এই কেসে একটি মামলা দায়ের করে সিবিআই। সবং থানার পুলিশ আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। ঠিক কী অভিযোগ দায়ের হয়েছিল? কী কী পদক্ষেপ করা হয়েছিল? মামলা সংক্রান্ত সমস্ত তথ্য খতিয়ে দেখেন তদন্তকারীরা। এরপরেই মঙ্গলবার ওই তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়। জানা গিয়েছে, তিনজনেই নিহত বিজেপি সমর্থকের আত্মীয়।

ভোট পরবর্তী হিংসায় একাধিক এফআইআর ও মামলা দায়ের করেছে সিবিআই। তবে মাঝখানে থমকে গিয়েছিল তদন্তপ্রক্রিয়া। বেশ কয়েকটি কেসে এখনও অধরা অভিযুক্তরা। তাদের গ্রেফতার করতে পুরস্কার ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। অভিযুক্তদের ধরে দিতে পারলেই ৫০ হাজার টাকা নগদ পুরস্কার দেবে সিবিআই। অভিযুক্তদের নাম, তাদের বিরুদ্ধে কোন মামলা চলছে সেবিষয়ে বিস্তারিত দেওয়া হয়েছে পুরস্কার ঘোষণাপত্রে। যিনি সিবিআইকে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করতে তথ্য দেবেন বা সাহায্য করবেন, তাঁর নাম পরিচয় গোপন রাখা হবে। সিবিআই মোবাইল নম্বর, ল্যান্ড ফোন নম্বর ও ইমেইল আইডি দিয়ে এবার পুরস্কার ঘোষণা করেছে।

এন এইচ, ০৯ ফেব্রুয়ারি

Back to top button