ফুটবল

কিংবদন্তি মেসির জন্য কাতার বিশ্বকাপ জিততে চান স্কালোনি

ঢাকা, ০৯ অক্টোবর- রাত পেরোলেই কাতার বিশ্বকাপে জায়গা করে নেওয়ার লড়াইয়ে প্রথমবারের মতো মাঠে নামবে দুই বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। ঘরের মাঠে দলটির প্রতিপক্ষ একুয়েডর। সেই ম্যাচে মাঠে নামার আগে আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্কালোনি জানালেন, দলের সেরা তারকা, কিংবদন্তি লিওনেল মেসির জন্য কাতার বিশ্বকাপ জিততে চান তারা।

২০০৬ বিশ্বকাপ হোসে পেকারম্যানের দলের হয়ে বিশ্বকাপে অভিষেক মেসির। সেই থেকে চারটি বিশ্বকাপ খেললেও এখনো বিশ্বকাপের শিরোপাটি হাতে তোলা হয়নি মেসির। এমনকি বৈশ্বিক কোনো শিরোপাও ধরা দেয়নি এই আর্জেন্টাইন গ্রেটের হাতে। ২০১৪ বিশ্বকাপ, ২০১৫ এবং ২০১৬ কোপা আমেরিকায় টানা রানার্স আপ জাতীয় দলের হয়ে এখন পর্যন্ত মেসির সর্বোচ্চ সাফল্য।

ক্লাব ক্যারিয়ারে অবশ্য ৩৪ শিরোপা আছে মেসির। তবে সবকিছুর বিনিময় হলেও বিশ্বকাপের শিরোপা নিজের করে পেতে চান রেকর্ড ৬ বারের ব্যালন ডি’অরজয়ী তারকা। ২০২২ বিশ্বকাপে মেসির বয়স হবে ৩৫ বছর। খুব স্বাভাবিকভাবে সেটিই হতে যাচ্ছে তার শেষ বিশ্বকাপ। তাই মেসির জন্য সেই বিশ্বকাপটি জিততে চান স্কালোনি।

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচ একুয়েডরের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে সংবাদ সম্মেলনে আর্জেন্টাইন কোচ বলেন, ‘আমরা বিশ্বকাপে কোয়ালিফাই করতে চাই দেশের জন্য এটি সত্য। তবে আরো একটা বড় কারণ আছে। সেটি হচ্ছে লিও। আমরা তার জন্য আগামী বিশ্বকাপটায় যেতে চাই। তার জন্য আমরা বিশ্বকাপ জিততে চাই। এটা নিয়ে আমরা অনেক আলোচনা করছি বিষয়টা সেটি নয়। তবে আমরা আসলে এরকমটাই চাই।’

আরও পড়ুন: ১ বছর পর আকাশী-নীল জার্সিতে ফিরছেন মেসি

গত বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে শুরুর দিজে আর্জেন্টিনা কিছুটা ব্যাকফুটে ছিল। তবে বাছাইপর্বের শেষ ম্যাচে একুয়েডরের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করে তৃতীয় স্থান দখল করে দলকে বিশ্বকাপে নিয়ে যান মেসি। এবারও মেসিকে ঘিরে পরিকল্পনা আর্জেন্টিনা কোচ স্কালোনির।

একুয়েডরের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে স্কালোনির বলেন, ‘ম্যাচটা কঠিন হতে যাচ্ছে। তবে আমরা ভালো দল নিয়ে মাঠে নামতে পারবো এবং প্রতিযোগিতামূলক একটি ম্যাচ হবে। আমাদের দলে একজন মেসি আছে ঠিকই তবে আরো বেশ কয়েকজন ভালো ফুটবলারও আছে।’

এই কোচ আরও যোগ করেন, ‘লিও সবসময়ই একজন স্ট্রাইকার। সে ৯ নাম্বার পজিশনে খেলুক কিংবা অন্য যে কোনো পজিশনে, সবসময়ই সে দলের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকে। আমার মনে হয়না তার জন্য আলাদা কোনো পজিশন প্রয়োজন আছে। সে সবসময় আক্রমনভাগের সামনেই থাকবে।’

দলের সেরা তারকা এবং ফুটবল বিশ্বের কিংবদন্তি মেসির শেষ বিশ্বকাপ কী রাঙাতে পারবেন তার সতীর্থ এবং কোচ? নতুন শুরুর প্রথম ম্যাচের আগে ইতিবাচক উত্তর নিয়ে তীর্থের কাকের মতোই অপেক্ষায় থাকবে আর্জেন্টাইন এবং মেসির ভক্তরা।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এন এইচ, ০৯ অক্টোবর

Back to top button