ফুটবল

অ্যাটলেটিকোকে হারিয়ে শীর্ষ চারে বার্সেলোনা

বহু ম্যাচ পর জ্বলে উঠেছে বার্সেলোনা। জাভি হার্নান্দেজের দলটি নিজেদের মাঠে রিয়াল মাদ্রিদের নগর প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে পেয়েছে বড় জয়।

রোববার ক্যাম্প ন্যুতে ৪-২ গোলে জয় পেয়েছে তারা। এই জয়ে পয়েন্ট তালিকায় ৪ নাম্বারে উঠে এসেছে তারা। অন্যদিকে এ ম্যাচ হেরে যাওয়ায় তালিকার পাঁচে নেমে গেছে সিমিওনের দল।

তবে খেলার শুরুটা ছিলো বার্সার জন্য হতাশার। খেলার ৮ মিনিটের মাথায় সুয়ারেজের অ্যাসিস্টে কারাস্কো গোলে এগিয়ে যায় অ্যাথলেটিকদের। কিন্তু ২ মিনিটও লাগেনি বার্সার গোল শোধ করতে। দানি আলভেসের বাড়ানো পাস থেকে বার্সাকে সমতায় ফেরান লেফট ব্যাক জর্দি আলবা।

দানির বাড়ানো ক্রস এসে পড়ে বাঁ পাশে অরক্ষিত আলবার পায়ে। স্প্যানিশ ডিফেন্ডার বাঁ পায়ে জোড়ালো ভলি করেন, বল এক বাঁক নিয়ে দূরের পোস্টে ওপরের কোণা দিয়ে ঠিকানা খুঁজে নেয়।

এরপর ২১ মিনিটেই আবার গোল পায় বার্সা। এবারের গোলদাতা তরুণ মিডফিল্ডার গাভি। কদিন আগেই দলে ভেরা আদামা ত্রাওরে ডান দিক থেকে ডি-বক্সের মাঝ বরাবর ক্রস বাড়ান। লাফিয়ে হেড দিয়ে দলকে এগিয়ে নেন তরুণ এ মিডফিল্ডার। এগিয়ে গিয়ে আত্মবিশ্বাসী বার্সা অ্যাথলেটিকোর ওপর চারানো শুরু করে একের পর এক আক্রমণ। মনে হচ্ছিলো বার্সায় তাদের আগের পাওয়ার হাউজ ফিরে পেয়েছে।

একের পর এক আক্রমণে চাপ ধরে রেখে ৪৩তম মিনিটে আরও এক গোল করে ব্যবধান বাড়ায় তারা। দানি আলভেসের ফ্রি কিকে জেরার্ড পিকের হেড ক্রসবারে লেগে ফিরলে শট নিতে চেষ্টা করে ফেরান তোরেস। কিন্তু তার প্রচেষ্টা ব্যর্থ হলে বল যায় রোনাল্ড আরাহোর পায়ে। জালে বল জড়াতে ভুল করেননি তিনি।

বিরতির পর বার্সেলোনা ৪৯তম মিনিটে ব্যবধান আরও বাড়ায়। বাঁ দিক থেকে আসা বল পেয়ে দূরপাল্লার শটে বল জালে জড়ান দারুণ খেলতে থাকা ব্রাজিলিয়ান খেলোয়াড় দানি আলভেজ। দ্বিতীয় মেয়াদে বার্সেলোনার ফিরে এই প্রথম গোল পেলেন তিনি। তবে তার কিছু সময় পর একটা মারাত্মক ফাউল করে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন দানিবয়। শেষ ২০ মিনিট তাই বার্সাকে খেলতে হয় ১০ জনের দল নিয়ে। তবে বড় কোনো বিপদ ঘটেনি।

৫৮ মিনিটে সিমিওনের শিষ্যরা আরও একটি গোল করে পরাজয়ের ব্যবধান কমায়। বার্সার এই জয়ে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদকে ৫ এ নামিয়ে দিয়ে বার্সা ফিরল পয়েন্ট তালিকার ৪ এ। দুইদলই সমান ২২ টি করে ম্যাচ খেলেছে। ২২ ম্যাচ শেষে বার্সার সংগ্রহ ৩৮ পয়েন্ট, অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের পয়েন্ট ৩৬। অন্যদিকে মাদ্রিদের আরেক দল রিয়াল মাদ্রিদ ৫০ পয়েন্ট সংগ্রহ করে রয়েছে তালিকার শীর্ষে।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ০৭ ফেব্রুয়ারি

Back to top button