জাতীয়

বঙ্গবন্ধু সাফারি প্রাণী ব্যবস্থাপনার বিদেশি কৌশল প্রয়োগ হবে

গাজীপুর, ০৪ ফেব্রুয়ারি – উৎস এবং জন্মস্থান খুঁজে সেইসব দেশের ব্যবস্থাপনার সাথে মিল রেখে দীর্ঘ মেয়াদে প্রাণী সংরক্ষণের কথা জানিয়েছেন গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের নব যোগদান করা প্রকল্প পরিচালক মোল্লা রেজাউল করিম। শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে পার্কের তথ্য কেন্দ্রে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রকল্প পরিচালক মোল্লা রেজাউল করিম জানান, এটি তার অতিরিক্ত দায়িত্ব। কিছুদিনের মধ্যে কিছু জেব্রা মৃত্যুসহ অন্যান্য প্রাণীর বিষয়ে কর্তৃপক্ষ আগের ব্যবস্থাপনাকে পরিবর্তন করে তকে দায়িত্ব দিয়েছে। বৃহস্পতিবার দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন জানিয়ে তিনি বলেন, সাফারি পার্কের ব্যাপারে তিনি কী করবেন বা তাকে কী করতে হবে সে ব্যাপারে এখনও তিনি স্পষ্ট ধারণা নিতে পারেননি।

পার্কের প্রাণীগুলোর ব্যবস্থাপনার জন্য দেশ এবং দেশের বাইরের বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে পার্কটিকে দীর্ঘ মেয়াদে সংরক্ষণের ব্যবস্থা করবেন বলে জানান তিনি।

পার্কটির ব্যাপারে স্বচ্ছতা রক্ষা করার ইচ্ছা প্রকাশ করে রেজাউল করিম জানান, পার্কের বেশিরভাগ প্রাণী বিদেশি। আর সে কারণেই সংশ্লিষ্ট দেশের ব্যবস্থাপনা সম্পৃক্ত রেখে এর কৌশল আয়ত্ব করা ও তা বাস্তবায়নের চেষ্টা করবেন।

ইতোমধ্যে প্রাণী বিশেষজ্ঞ বোর্ডের সদস্যদের ১০ দফা সুপারিশসমূহের মধ্যে লেকের পানি শোধন ও টিকা কার্যক্রমসহ তিনিট পুরোপুরি বাস্তবায়ন হয়েছে। বাকিগুলো বাস্তবায়ন কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে জানান তিনি। পার্কের ঝুঁকিগুলো চিহ্নিত করে সংশ্লিষ্ট বিভাগ ও কর্তৃপক্ষের সাথে সমন্বয় করে সমাধানের কথাও উল্লেখ করেন।

প্রাণী মৃত্যুর কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের আগে কোনো কিছু বলা সম্বব নয়। এছাড়া তার কাছে পার্কের সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য চাওয়া হলে সকল কিছু পুঙ্খানুপুঙ্খ জেনে অবহিত করার আশ্বাস দেন।

উল্লেখ্য, গত জানুয়ারি মাসে পার্কে ১১টি জেব্রা, ১টি বাঘ ও ৩ ফেব্রুয়ারি একটি সিংহী মারা যায়। এসব প্রাণীর মৃত্যু নিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন এবং তদন্তের স্বার্থে পার্কের শীর্ষ পর্যায়ের তিন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হয়।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
এম ইউ/০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২

Back to top button