যশোর

কোটি টাকার সার নিয়ে ডুবল জাহাজ

যশোর, ০৪ ফেব্রুয়ারি – ৬৪৯ মেট্রেক টন ইউরিয়া সার বোঝাই একটি জাহাজ যশোরের অভয়নগর সংলগ্ন ভৈরব নদে ডুবে গেছে। বুধবার দিবাগত রাতে নওয়াপাড়া এলাকার পীরবাড়ি খেয়াঘাটের পাশে ভৈরব নদে এমভি শারিব বাঁধন নামের ওই জাহাজটি ডুবে যায়।

জাহাজে বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশনের কাতার থেকে আমদানি করা ৬৪০ মেট্রিক টন ইউরিয়া ছিল। চট্টগ্রাম ভিত্তিক শিপিং কোম্পানি টোটাল শিপিং ওই সার পরিবহন করছিল। এদিকে ইউরিয়া গলে ভৈরবের পানি দূষিত হয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

শিপিং কোম্পানি সূত্র জানায়, কাতার থেকে আমদানি করা ইউরিয়া বড় জাহাজে করে চট্টগ্রামে আনা হয়। সেখানে বড় জাহাজ থেকে ৬৮০ মেট্রিক টন (১৩ হাজার ৫০০ বস্তা) ইউরিয়া ছোট জাহাজ এমভি শারিব বাঁধনে ভরা হয়। গত ২১ জানুয়ারি জাহাজটি চট্টগ্রাম বন্দর থেকে রওনা হয়ে ২৫ জানুয়ারি অভয়নগর উপজেলার নওয়াপাড়া পীরবাড়ি খেয়াঘাটে নোঙ্গর করে। সার নামানোর জন্য গতকাল বুধবার দুপুরে জাহাজটি তীরের কাছাকাছি আনা হয়। বৃহস্পতিবার সকালে সার ঘাটে নামানোর কথা ছিল।

বুধবার রাতে নদে ভাটা ছিল। পানি কম থাকায় ইউরিয়ার ভারে রাত সাড়ে ১২টার দিকে জাহাজটির তলা ফেটে যায়। এরপর জাহাজটি আস্তে আস্তে ডুবতে থাকে। এতে জাহাজে থাকা সার গলে নদের পানিতে মিশে যায়।

এমভি শারিব বাঁধনের মাস্টার শরীফ হোসেন বলেন, জাহাজে ৬৪০ মেট্রিক টন ইউরিয়া নামানোর অপেক্ষায় ছিল। গতকাল রাতে জাহাজের তলা ফেটে পানি উঠতে শুরু করে। রাত দুইটার দিকে জাহাজটি পানিতে ডুবে যায়।

টোটাল শিপিং কোম্পানির খুলনা ইনচার্জ আব্দুল মজিদ বলেন, জাহাজে কাতার থেকে আমদানি করা ইউরিয়া ছিল। জাহাজে থাকা সব ইউরিয়া পানিতে মিশে গেছে। এতে প্রায় ১ কোটি ৩০ লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে। জাহাজ উদ্ধারে আমরা ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ০৪ ফেব্রুয়ারি

Back to top button