ঢালিউড

আমাদের ভালো কাজ করার রাস্তাটা বন্ধ করবেন না, সিয়ামের অনুরোধ

ঢাকা, ০২ ফেব্রুয়ারি – এ সময়ের সবচেয়ে ব্যস্ত নায়ক সিয়াম আহমেদ, যার হাতে রয়েছে একাধিক সিনেমা। এক সিনেমার শুটিং শেষ হতে না হতেই আরেক সিনেমার কাজে নেমে পড়েন। মুক্তি অপেক্ষায় রয়েছে তার অর্ধ ডজন সিনেমা, এছাড়াও কথা চলছে আরও বেশ কিছু নতুন সিনেমার। কিছুদিন আগেই ওটিটি প্লাটফর্ম চরকিতে মুক্তি পেয়েছে তার নতুন সিনেমা ‘টান’, যেটি এখন দর্শকমহলে বেশ প্রশংসা কুড়াচ্ছে। সিনেমা ও সাম্প্রতিক বিষয় নিয়ে ছোট্ট এক আলাপনে কথা বলেন জনপ্রিয় এ নায়ক। পাঠকদের জন্য তা তুলে ধরা হলো-

সদ্য ওটিটিতে মুক্তি পেলো সিনেমা ‘টান’। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ পজিটিভ মন্তব্য দেখা যাচ্ছে। দর্শক সাড়া কেমন অনুভব করছেন? এমন প্রশ্নে সিয়াম আহমেদ বলেন, ‘নতুন বছরের শুরুতে তো বড় পর্দায় ‘শান’ নিয়ে আসার কথা ছিলো, সেটা যেহেতু হয়নি আমার দর্শকদের জন্য নতুন একটা কাজ নিয়ে আসতে চেয়েছিলাম। খুবই অল্প সময়ের মধ্যে কাজটি করা এবং দর্শকদের সামনে নিয়ে আসা। তারপরও যে পরিমাণ সাড়া পাচ্ছি এবং সবার পজিটিভ মন্তব্য পাচ্ছি; আলহামদুলিল্লাহ।

আমার কাছে মনে হয়েছে, যদি আমরা আরেকটু সময় নিয়ে এটার প্রচারণা করতে পারতাম তাহলে এটার ফিডব্যাক কি আসতো আল্লাহই জানে! আমাদের টাইমফ্রেমটা একটু লিমিটেড ছিলো, যার কারণে অনেকটা প্রেশার নিয়েই কাজটা করতে হয়েছে। এত প্রেশারের মধ্যেও যে সাড়া পেয়েছি সেটা এক্সট্রিম। আমার মনে হয় না, আমাদের টিম এতোটাও আশা করেছিলো। অল্প সময়ের মধ্যেই এখন পর্যন্ত অনেক মানুষই দেখেছেন, যারা এখনও দেখেননি তাদের অনেকেই ‘টান’ নামটা জানেন বা শুনেছেন; তারা হয়তো দেখবেন শিগগিরই। এছাড়া আমার অনেক সহশিল্পী, পরিচালক অনেকেই কাজটি দেখেছেন। দেখার পর গল্পের কোন জায়গাটা ভালো লেগেছে, তারা কি প্রত্যাশা করেছিলেন, কোথায় শকড হয়েছেন; এসব বিষয়গুলো আমাকে অনেকেই জানিয়েছেন। এত অল্প সময়ে এতটুকু পৌঁছেছে, এটাই তো অনেক। আলহামদুলিল্লাহ, অনেক ভালো সাড়া পাচ্ছি।’

যোগ করে সিয়াম আরও বলেন, ‘দেশের বাইরেও কিন্তু আমাদের অনেক প্রবাসীরা রয়েছেন যারা অনেকসময় চাইলেও দেশের সিনেমা দেখতে পারেন না। আমাদের অনেক সিনেমা-ই কিন্তু আমরা একই দিনে দেশ ও দেশের বাইরে মুক্তি দিতে পারিনা। সেদিক থেকে ওটিটি কিন্তু সে সুযোগটা করে দিচ্ছে। দেশের বাইরের দর্শকরা তাদের সুবিধামতো সময়ে চাইলেই কিন্তু দেশের কাজগুলো দেখতে পারছেন। ওটিটি প্লাটফর্মের একটা সুবিধা হচ্ছে কোন কাজ মুক্তি পেলে সেটা কিন্তু সেখানে থেকে যাচ্ছে। যার কারণে দর্শকের কাছ থেকে শুনে অন্য একজন দর্শক চাইলেই কাজটা দেখতে পারছেন। যেখানে আমরা ইউটিউবে ফ্রিতেই কন্টেন্ট দেখতে পারি, সেখানে অনেকেই ওটিটির কন্টেন্টগুলো ফ্রিতে দেখতে চান! আমরা যদি এগুলো নিজেরা বন্ধ না করি তাহলে পরবর্তীতে ওটিটিতে আরেকটা ভালো কন্টেন্ট পাবো কি করে!’

‘টান’ এর মধ্য দিয়েই প্রথমবারের মত শবনম বুবলীর সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন। তার সঙ্গে আপনার কাজের অভিজ্ঞতা কেমন ছিলো? এমন প্রশ্নে নায়কের উত্তর, ‘‘টান’ এর যে গল্পটা সেখানে কিন্তু আমাদের দুজনের সম্পর্কের কিছুটা সময়ের পরবর্তী সময় থেকে দেখানো হয়েছে আর যারা দেখেছেন তারা তো গল্পটা সম্পর্কে জানেনই। সেই সম্পর্কের গল্পটাতে এমন দুইজন চরিত্রকে দেওয়া হয়েছে যারা আগে একসাথে কাজ করেননি। সেই জায়গা থেকে এরকম একটা চরিত্রে আমার জন্য তো অবশ্যই চ্যালেঞ্জিং ছিলো, তার ওপর বুবলীর সঙ্গে আগে কোন কাজ হয়নি আমার। স্বভাবতই বুবলীর সিনেমাতে কাজের অভিজ্ঞতা আছে এবং সে অনেক ডেডিকেটেড একজন শিল্পী। সে যেভাবে পারফর্ম করেছে, সবাইকে কো-অপারেট করেছে; আমি অনেক বেশি আনন্দিত। নিঃসন্দেহে বুবলী এখানে অনেক ভালো করেছে এবং আমি নিশ্চিত দর্শকরা এখানে একজন নতুন বুবলীকে দেখতে পেয়েছেন। আমার সঙ্গে তো ওর অবনী হিসেবে পরিচয় হয়েছে। আমি বলবো, অবনী অনেক ভালো করেছে এবং চাই আগামীতে আরও অনেক ভালো করুক।

নতুন বছরের শুরুতেই ‘শান’ মুক্তি পাওয়ার কথা ছিলো, এরপর পিছিয়ে গেলো। এখন সেটি কবে মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা করছেন? নায়কের উত্তর, সবকিছু তো প্রস্তুত করাই ছিলো, আমরা প্রচার-প্রচারণাও চালিয়েছি কিন্তু শেষমুহূর্তে এসে স্থগিত করতে হলো। এখন সেটা একদম বড় উৎসবে মুক্তির পরিকল্পনা আছে, এর আগে আসার কোন সম্ভাবনা নেই। একদম ঈদেই ‘শান’ নিয়ে হাজির হবো আমরা।

‘অন্তর্জাল’ সিনেমার আপডেট জানাতে গিয়ে এ অভিনেতা বলেন, ‘এটা শেষ হতে সময় লাগবে আরও। শিডিউল দিয়ে রেখেছি, এখন পরিচালক ভালো বলতে পারবে যে কবে শেষ হবে। এটার জন্য বিজ্ঞানমেলা প্রয়োজন, একটা হ্যাকাথন ল্যাব প্রয়োজন তারপর দেড় থেকে দুই হাজার শিশু, তরুণ-তরুণী প্রয়োজন, তারপর কনসার্টের প্রয়োজন। কোভিডের কারণে তো এসব আয়োজনগুলো করা যাচ্ছে না, যার কারণে সময় লাগছে অনেক। এরপর দেশের বাইরে দৃশ্যায়ন আছে, এখন তো দেশের বাইরে যাওয়ারও অনুমতি পাচ্ছি না। ৮০ ভাগেরও বেশি কাজ শেষ হয়ে গিয়েছে, বাকি অংশ শুধু এখন সময়-সুযোগের ওভাবে আটকে রয়েছে।’

হাতে থাকা অন্যান্য সিনেমাগুলো সম্পর্কে সিয়াম বলেন, ‘‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ সিনেমার আপডেট আমি তেমন একটা জানি না। তবে ‘অপারেশন সুন্দরবন’ মুক্তির জন্য একদম প্রস্তুত আছে। ভারতে পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ চলছে এখন। সম্ভাবনা আছে কোন উৎসবে মুক্তি দেওয়ার। ‘দামাল’ একদম প্রস্তুত, এটা শিগগিরই চলে আসবে; যতটুকু জানি।’

জাজ মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত নতুন সিনেমা ‘রাস্তা’ এর শুটিং শুরু করবেন শিগগিরই। এছাড়া এখন বেশ কয়েকটি নতুন সিনেমা নিয়ে কথাবার্তা চলছে বলে জানান সিয়াম।

এন এইচ, ০২ ফেব্রুয়ারি

Back to top button