জাতীয়

সংসদের ১৬তম অধিবেশন সমাপ্ত

ঢাকা, ২৮ জানুয়ারি – জাতীয় সংসদের ১৬তম এবং বছরের প্রথম অর্থাৎ শীতকালীন অধিবেশনের সমাপ্তি হলো। করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির কারণে মাত্র পাঁচ কার্যদিবস চলে এই অধিবেশন।

বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) রাতে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশন সমাপ্তি সম্পর্কে রাষ্ট্রপতির আদেশ পাঠের মাধ্যমে সংসদের বৈঠকের ইতি টানেন।

এর আগে স্বাধীনতার পর পাকিস্তানের কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে দেশে ফেরার আগে ভারতে একটি জনসভায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষণ সংসদ কক্ষে দেখানো হয়।

পাঁচ কার্যদিবসের এই অধিবেশন শুরু হয় গত ১৬ জানুয়ারি। সংবিধানের নিয়ম অনুযায়ী প্রথম দিন সংসদে ভাষণ দেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

পরে তার ভাষণের জন্য ধন্যবাদ জানাতে প্রস্তাব তোলেন প্রধান হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী। এই প্রস্তাবের ওপর আলোচনা শেষে বৃহস্পতিবার রাতে তা সর্বসম্মতিক্রমে গ্রহণ করা হয়।

প্রথমে পরিকল্পনা ছিল কয়েক দফা বিরতি দিয়ে মধ্য ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এই অধিবেশন চলবে। তবে ওমিক্রনের দাপটের কারণে ওই পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনা হয়।

গত কয়েক দিনে প্রায় ৪০ জনের মতো সংসদ সদস্য এবং সংসদ সচিবালয়ের দুই শতাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

রাষ্ট্রপতির ভাষণ ছাড়া এই অধিবেশনে পাস হয়েছে বহুল আলোচিত নির্বাচন কমিশন গঠন সংক্রান্ত আইন। প্রায় তিন ঘণ্টা আলোচনা শেষে বৃহস্পতিবার দুপুরে সংসদে ওই আইনটিতে সায় দেয় দেশের আইনসভা। সংসদের ভেতরে ও বাইরে এই আইনটি নিয়ে ছিল নানামুখী আলোচনা।

অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ ৫৫ সংসদ সদস্য রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আলোচনা করেন। আলোচনা হয়েছে নয় ঘণ্টা ৩০ মিনিট।

এই অধিব্শেনে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ৫২টি প্রশ্ন করেন আইনপ্রণেতারা। যার মধ্যে ২০টির জবাব দিয়েছেন তিনি। অন্য মন্ত্রীদের জন্য প্রশ্ন জমা পড়ে এক হাজার ৪৭৬টি। মন্ত্রীরা উত্তর দিয়েছেন ২৯০টির।

সাধারণত বছরের প্রথম ও বাজেট অধিবেশন দীর্ঘ হয়। বছরের প্রথম অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর আলোচনা এবং বাজেট অধিবেশনে বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনার কারণেই এ দুটি অধিবেশন দীর্ঘ হয়ে থাকে।

তবে বৈশ্বিক মহামারি কোভিড-১৯ এর কারণে গত দুই বছর ধরে এ দুটি অধিবেশনও সংক্ষিপ্ত হচ্ছে।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ২৮ জানুয়ারি

Back to top button

This will close in 20 seconds