সম্পর্ক

মেসেজের বদঅভ্যাস সম্পর্ককে প্রভাবিত করে

এখন অনেকেই ফোনে কথা বলার চাইতে মেসেজ দেওয়াটাই সহজবোধ মনে করেন। বিশেষ করে দেখা যায়, যাদের সম্পর্ক রয়েছে তারা তাদের পার্টনারের সঙ্গে মেসেজেই সব ধরণের আলাপ আলোচনা করে থাকে। কিন্তু অতিরিক্ত মেসেজ বদঅভ্যাসে পরিণত হয়ে যায়। এমনকি এই বদঅভ্যাস সম্পর্কের উপর প্রভাবিত হয়।

কেননা অতিরিক্ত মেসেজের কারণে কিংবা মেসেজ যদি অযৌক্তিক হয়ে থাকে তাহলে পার্টনার খুব বিরক্ত হয়ে যায়, যা আপনার জন্য অমঙ্গল ডেকে আনে। মেসেজের কিছু বদঅভ্যাসগুলো উল্লেখ করা হলো-

১) মেসেজে অতিরিক্ত চিহ্ন ব্যবহার করা    

পার্টনারের জন্য মেসেজ লিখেছেন ভালো কথা কিন্তু মেসেজের মধ্যে অতিরিক্ত চিহ্ন ব্যবহার করা একেবারেই ভালো না। এতে মেসেজ দেখতে খুব বাজে লাগে। পার্টনার যখন মেসেজ পড়ছে তখন এই চিহ্নগুলো তাকে বিরক্ত করে দিবে। এছাড়া সেখানে খুব গুরুত্বপূর্ণ কথাও যদি চিহ্নের মাধ্যমে বলেন তাহলে সম্পর্ক খারাপ তো হবেই।

২) পার্টনারের কাজের সময় অতিরিক্ত মেসেজ

পার্টনার হয়তো কোন জরুরি কাজে কিংবা গুরুত্বপূর্ণ পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছে, ঠিক এ সময় আপনি তাকে মেসেজ দিলেন ভালো কথা কিন্তু মেসেজের উত্তর না আসলে বার বার তাকে মেসেজ করছেন। এটা একেবারেই ঠিক নয়। এতে পার্টনার যে বিরক্ত হবেন এটা খুবই স্বাভাবিক। কারণ আপনি যে মুহূর্তে তাকে মেসেজ করছেন সেই সময় তার উত্তর দেওয়ার মতো কোন পরিস্থিতি নাও থাকতে পারে। এই সময় তিনি বার বার মেসেজ দেখলে বিরক্তবোধ হবে এবং সম্পর্কের উপর নেতিবাচক ভাবনা ভাবতে শুরু করবে।

৩) মেসেজে ঝগড়া করা

মেসেজে ঝগড়া করা মোটেও বুদ্ধিমানের কাজ নয়। মেসেজে ঝগড়া করলে শুধুই মাথাই গরম হয়। তাতে কোনও সমস্যার সমাধান হয় না। তাই ঝগড়া করতে হলে বা আপনার যদি কোনও বিষয় খারাপ লাগে তাহলে সামনাসামনি সেটা পার্টনারকে বলুন। দেখবেন সম্পর্ক খারাপ হওয়ার পরিবর্তে সমস্যা ঠিক হয়ে যাবে।

৪) অতিরিক্ত ইমোজি ব্যবহার 

ফেসবুকের মেসেনজারে অনুভূতি বোঝাতে মাঝে মাঝে স্মাইলি এবং এমন বিভিন্ন ধরণের ইমোটিকন বা ইমোজি ব্যবহার করা হয়। কিছু কিছু ক্ষেত্রে রসিকতা করার সময়ে দু’একটা ইমোটিকন মজা লাগে বটে। কিন্তু যখন অতিরিক্ত ইমোটিকন ব্যবহার করবেন, একই ইমোটিকন বারবার দেবেন, অথবা কথার বদলে ইমোটিকন ব্যবহার করবেন সর্বত্র, তা নিতান্তই বিরক্তিকর হয়ে দাঁড়াবে।

৫) অযথাই সংক্ষিপ্ত করে লেখা

মেসেজ করার সময়ে অনেকেই সংক্ষেপে লেখেন। ‘good night’ লেখার পরিবর্তে লেখেন ‘gd8’, প্রতিটা শব্দকে সংক্ষেপ করতে করতে এমন দুর্বোধ্য ভাষা তৈরি করে ফেলেন যে তার মর্মার্থ আর খুঁজে বের করা যায় না। এতে পার্টনার ভাষা বুঝতে না পেরে খুব বিরক্তবোধ করে।

এম ইউ

Back to top button