জাতীয়

কোনো টাকা চাননি সার্জেন্ট, ক্ষমা চাইলেন সেই বিদেশি

ঢাকা, ২০ জানুয়ারি – রাজধানীর মহাখালীতে রাওয়া ক্লাবের সামনে এক ট্রাফিক সার্জেন্টের উদ্দেশ্যে চীনা নাগরিকের টাকা ছুড়ে দেওয়ার ঘটনার তদন্ত করেছে পুলিশ। প্রাথমিকভাবে সার্জেন্টের কোনো দোষ খুঁজে পাওয়া যায়নি। ওই চীনা নাগরিক বিনা কারণে মেজাজ হারিয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে প্রাথমিক তদন্তে উঠে এসেছে। এছাড়াও ওই চীনা নাগরিক প্রাথমিকভাবে পুলিশের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন।

এরই মধ্যে চীনা নাগরিকের গাড়ির চালকের সঙ্গে কথা বলেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের তেজগাঁও ট্রাফিক বিভাগ। তার বক্তব্যেও কর্তব্যরত ট্রাফিক সার্জেন্ট ও অন্য ট্রাফিক সদস্যদের কোনো দোষ পাওয়া যায়নি। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানতে ওই চীনা নাগরিককে ডাকা হয়েছিল।

বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) দুপুরে ডিএমপির তেজগাঁও ট্রাফিক বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) সাহেদ আল মাসুদ এসব তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ঘটনার পর এ বিষয়ে আমরা ডিএমপির কাফরুল থানায় একটি জিডি করেছি। সেদিন কী ঘটেছিল, তা জানতে আমরা তদন্ত করছি।

তিনি আরও বলেন, আমরা প্রাথমিকভাবে তদন্তে জানতে পেরেছি, ওই চীনা নাগরিক সিএলএক্স নামে একটি গার্মেন্টসে চাকরি করেন। ঘটনার দিন তিনি একটি প্রাইভেটকারে করে অফিসে যাচ্ছিলেন। পরে রাওয়া ক্লাবের সামনে কর্তব্যরত ট্রাফিক সার্জেন্ট তার গাড়ি থামিয়ে চালকের কাছে কাগজপত্র দেখতে চান। চালক কাগজ দেওয়ার পর সার্জেন্ট তা পরীক্ষা করে দেখছিলেন। এর মধ্যেই ওই চীনা বিনা কারণে গাড়ি থেকে নেমে উত্তেজিত হয়ে মেজাজ হারিয়ে টাকা ছুড়ে মারেন ও অশ্লীল ভাষায় কথা বলেন।

কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা কোনো টাকা চেয়েছিলেন কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে ডিসি সাহেদ আল মাসুদ বলেন, ঘটনার সময় উপস্থিত কর্তব্যরত ট্রাফিক সার্জেন্টের শরীরে ‘বডি ওর্ন ক্যামেরা’ ছিল। ক্যামেরায় ধারণকৃত ভিডিও ও অডিওতে আমরা এ ধরনের কোনো তথ্য পাইনি। এছাড়া উপস্থিত জনতা কেউই এ ধরনের কথা বলেনি।

গাড়িচালককে ডেকে কথা বলা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, তিনিও আমাদের বলেছেন, কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা শুধুমাত্র গাড়ির কাগজ দেখতে চেয়েছিলেন। গাড়ির কাগজ পরীক্ষা করতে দুই-তিন মিনিট যে সময় লাগে, তা শেষ না হওয়ার আগেই ওই চীনা নাগরিক গাড়ি থেকে নেমে পড়েন। গাড়ি থেকে নেমে তিনি বিনা কারণে উত্তেজিত হয়ে এ ঘটনা ঘটান। আগে বা পরে গাড়িরচালক ব্যতীত কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা ওই চীনা নাগরিকের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি।

এ ঘটনার তদন্ত চলমান উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, আমাদের তদন্তে এখন পর্যন্ত কর্তব্যরত ট্রাফিক সদস্যের কোনো ধরনের গাফিলতি বা অপরাধ পাওয়া যায়নি। তিনি নিয়মতান্ত্রিকভাবে তাদের কাজ করছিলেন। ওই চীনা নাগরিকের সঙ্গেও আমাদের কথা হয়েছে। তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ক্ষমা চেয়েছেন। পরবর্তীতে তিনি লিখিতভাবে ঘটনার কারণ দর্শাবেন এবং ক্ষমা চাইবেন বলে জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার রাওয়া ক্লাবের সামনে এক চীনা নাগরিক ট্রাফিক পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশে টাকা ছুড়ে মারেন। এ ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়। ওই ভিডিওতে দেখা যায়, চীনের ওই নাগরিক ট্রাফিক পুলিশকে লক্ষ্য করে বারবার বলছেন, ‘ইউ ওয়ান্ট মানি, আই গিভ ইউ দিস…মানি’ (তুমি টাকা চাচ্ছো, আমি তোমাকে টাকা দিচ্ছি)। এই বলে তিনি টাকা ছুড়ে মারেন। এ সময় ওই বিদেশিকে অশ্লীল ভাষায় কথা বলতেও শোনা যায়।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ২০ জানুয়ারি

Back to top button