ইউরোপ

লকডাউনে পার্টি: জোরালো হচ্ছে জনসনের পদত্যাগের দাবি

লন্ডন, ১৯ জানুয়ারি – কোভিডের কারণে লকডাউন চলাকালে ডাউনিং স্ট্রিটে একাধিক পার্টি আয়োজন করার জেরে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের পদত্যাগের দাবি জোরালো হচ্ছে।

বার্তাসংস্থার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বুধবার নিজ দলের কয়েকজন আইনপ্রণেতা ইস্যুটি নিয়ে জনসনের বিরোধিতা করেছেন এবং ক্ষোভ দেখিয়েছেন।

ব্রেক্সিটকে কেন্দ্র করে জনপ্রিয় হয়ে ওঠা বরিস জনসনের দল কনজারভেটিভ পার্টি ২০১৯ সালে ৩০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বড় জয় পায়। ওই সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ভালো পারফমেন্সই দেখাচ্ছিলেন বরিস।

কিন্তু করোনার লকডাউনের সময় পার্টি করায় বড় ধরনের বিতর্কের মুখে পড়েন তিনি। তার পদত্যাগ দাবি করেন আইনপ্রণেতারা। ক্রমশ এ দাবি জোরালো হচ্ছে।

বরিস জনসন তার সরকারি বাড়ি ও ডাউনিং স্ট্রিটে দুটি পার্টি করেছিলেন। এ ঘটনায় তিনি ইতোমধ্যে ক্ষমা চাইলেও তার ওপর থেকে চাপ সরছে না।

জনসনের প্রধানমন্ত্রী পদে থাকাকে চ্যালেঞ্জ করতে হলে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের ৩৬০ জন কনজারভেটিভ দলের এমপিদের মধ্যে ৫৪ জনকে দলটির ১৯২২ কমিটির চেয়ারম্যানের কাছে অনাস্থা জানিয়ে চিঠি লিখতে হবে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ইতোমধ্যে অন্তত ২০ জন রক্ষণশীল আইনপ্রণেতা জনসনের প্রতি অনাস্থা জানিয়ে চিঠি লিখেছেন।

সংবাদমাধ্যমের এক যাচাইয়ে দেখা গেছে, রক্ষণশীল দলে (বরিসের নিজ দল) অন্তত ৫৮ জন আইনপ্রণেতা বরিস জনসনের লকডাউন পার্টির সমালোচনা করেছেন।

এ পরিস্থিতি ক্রমবর্ধমান চাপের মুখে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী জনসন বলছেন, তিনি পদত্যাগ করবেন না।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ১৯ জানুয়ারি

Back to top button