ইউরোপ

ব্রিটিশ পার্লামেন্টে চীনা গোয়েন্দার হানা

লন্ডন, ১৭ জানুয়ারি – যুক্তরাজ্যের সংসদ সদস্য ও রাজনীতির ওপর প্রভাব খাটাতে এক নারীকে নিয়োগ দিয়েছে চীন। চীনের কমিউনিস্ট পার্টির পক্ষ থেকে তাকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে বলে ব্রিটিশ গোয়েন্দা সংস্থা এমআই৫ দেশটির আইনপ্রণেতাদের এমন সতর্কবার্তা দিয়েছে। এক প্রতিবেদনে এই খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএনআই।

প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, চীনা কমিউনিস্ট পার্টির পক্ষে যুক্তরাজ্যে ‘রাজনৈতিক হস্তক্ষেপমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত’ অভিযোগ করে এমআই৫ গত বৃহস্পতিবার ক্রিস্টিন লি নামের এক নারীর একটি ছবি ও সতর্কবার্তা পাঠায়।

যুক্তরাজ্যের সংসদের স্পিকার লিন্ডসে হোয়েল আইনপ্রণেতাদের কাছে এমআই৫-এর সতর্কবার্তা পৌঁছে দেন। তিনি বলেন, এমআই৫ দেখেছে যে লি ‘হংকং এবং চীনে অবস্থিত বিদেশি নাগরিকদের পক্ষ থেকে উচ্চাকাঙ্ক্ষী সংসদ সদস্যদের আর্থিক অনুদানের সুবিধা দিয়েছেন।’

এদিকে চীন এমআই৫–এর এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, লি যুক্তরাজ্যের লেবার পার্টির সাংসদ বেরি গার্ডিনারসহ বেশ কয়েকজনকে আর্থিক সুবিধা দিয়েছিলেন। গার্ডিনার তার কাছ থেকে ৪ লাখ ২০ হাজার পাউন্ডের বেশি অর্থ নিয়েছেন।

যুক্তরাজ্যের ক্ষমতাসীন রক্ষণশীল দলের সাবেক নেতা ইয়ান ডানকান স্মিথ বলেন, এটি অবশ্যই উদ্বেগের বিষয়। তিনি ওই নারীকে চীনে পাঠিয়ে দেওয়ার দাবি করেন। আর এ নিয়ে হাউস অব কমন্সে একটি বিবৃতি দিতে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের প্রতিও আহ্বান জানিয়েছেন।

উত্তরপশ্চিমাঞ্চলীয় জিনজিয়াং অঞ্চলে মনবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনায় চীনের বিরুদ্ধে সরব ডানকান স্মিথ। যে কারণে তার বিরুদ্ধে চীন সরকারের নিষেধাজ্ঞাও রয়েছে।

রক্ষণশীল দলের আইনপ্রণেতা তোবিয়াস এলউডও হাউস অব কমনসে বিবৃতিতে সরকারের কাছে আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘চীনের কাছ থেকে আমরা এ রকম ক্ষতিকর হস্তক্ষেপই প্রত্যাশা করছিলাম। কিন্তু তারা সরাসরি পার্লামেন্টকে নিশানা করেছেন। বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে দেখা উচিত সরকারের।’

সূত্র : আমাদের সময়
এন এইচ, ১৭ জানুয়ারি

Back to top button