মধ্যপ্রাচ্য

রাজনীতি থেকে নিশ্চিহ্ন হওয়ার দ্বারপ্রান্তে বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু

জেরুজালেম, ১৬ জানুয়ারি – ইসরাইলের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও লিকুদ পার্টির চেয়ারম্যান বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে দুর্নীতিসহ মোট তিনটি অভিযোগ আনা হয়েছে।
তবে বিচারের মুখোমুখি হওয়ার আগে ‘প্লি বার্গেন’ চুক্তির মাধ্যমে নিজের দোষ স্বীকার করে নিতে যাচ্ছেন নেতানিয়াহু। এর ফলে তাকে আর জেলে যেতে হবে না। তবে এই চুক্তির সঙ্গে সঙ্গে তার রাজনৈতিক জীবনের অবসান ঘটবে।

নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে সেগুলো হলো, বিশ্বাস ভঙ্গ করা, ধনী বন্ধুদের কাছ থেকে অবৈধ উপহার গ্রহণ করা ও একটি টেলিকম কোম্পানির কাছ থেকে ঘুষ গ্রহণ করা। এই অভিযোগগুলো প্রমাণ হলে লম্বা সময়ের জন্য জেল হতো নেতানিয়াহুর।

ইসরাইলের গণমাধ্যমগুলোর বরাত দিয়ে দ্য গার্ডিয়ান জানিয়েছে, অন্তত ৮০ বছর বয়স পর্যন্ত রাজনীতি করতে পারবেন না এমন নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বেন নেতানিয়াহু। মানে তার রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের ইতি ঘটবে এখানেই।

দ্য গার্ডিয়ান আরো জানিয়েছে, ইসরাইলের অ্যাটর্নি জেনারেল আভিচাই মান্ডেলব্লিটের সঙ্গে কয়েক সপ্তাহ ধরে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছেন নেতানিয়াহু।

এখনো চুক্তির বিষয়টি অফিসিয়ালি ঘোষণা দেয়া হয়নি। তবে খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে ঘোষণাটি এসে যাবে।

নেতানিয়াহুকে জেল ঘানি না টানিয়ে দায়মুক্তি দেয়ার বিষয়টি আবার অনেকে মেনে নিতে পারছেন না। এরইমধ্যে ইসরাইলের কয়েকটি জায়গায় প্রতিবাদ হয়েছে।

তাছাড়া নেতানিয়াহুর সঙ্গে এই চুক্তি করার কারণে ইসরাইলের বর্তমান সরকারের পতন হতে পারে। যদিও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেতে জানিয়েছেন তাদের কোনো সমস্যা হবে না।

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/১৬ জানুয়ারি ২০২২

Back to top button