মাদারীপুর

ইউপি নির্বাচনে একসঙ্গে জয়ী মা-ছেলে

ঢাকা, ০৮ জানুয়ারি – পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচনে মাদারীপুরের শিবচরে কাঁঠালবাড়ি ইউনিয়নে মা ও ছেলে দু’জনেই ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে গত ৫ জানুয়ারি (বধুবার) সংরক্ষিত ও সাধারণ সদস্য পথে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ শেষে রাতে উপজেলায় ইলিয়াছ আহম্মেদ অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠানিকভাবে ভোটের ফল প্রকাশ করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা মো: মাকসুদুর রহমানসহ নির্বাচনীয় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তরা।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, কাঁঠালবাড়ি ইউনিয়নের ১,২ ও ৩ নং সংরক্ষিত ওয়ার্ড সদস্য পদে মোসাঃ লুৎফুন্নেছা মাইক প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেন। এসময় নিকটতম তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বীকে হারিয়ে তিনি ২ হাজার ২’শ ৪৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হন। অপর দিকে বিজয়ী লুৎফুন্নেছার ছেলে মোঃ চুন্নু মিয়া মোরগ প্রতীক নিয়ে ২ নং ওয়ার্ড থেকে সাধারন সদস্য পদে নির্বাচন করে তিনজন নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীকে হারিয়ে ৩ শ ৪২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন।

নব নির্বাচিত মোঃ চুন্নু মিয়া বলেন, এমপির কারণে আমার সুষ্ঠু নির্বাচন পেয়েছি। আগে যারা নৌকা পাইতো তারা আবার মেম্বার নির্বাচন করতো এবার আর সেই সুযোগ নেই। একবাড়ি থেকে আমি আর আমার মা নির্বাচন করেছি মেম্বার পদে দুজনেই জনগনের ভোটে পাশ করেছি। জনগন আমাদের ভোট দিয়েছে আমরা সারাজীবন জনগনের পাশে থাকবো।

উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মো: মাকসুদুর রহমান মা ও ছেলের বিজয় নিশ্চিত করে বলেন, কোন ধরনের সহিংসতা ছাড়া বিপুল সংখ্যক ভোটার উপস্থিতিতে শিবচরের নির্বাচনটি সারাদেশে একটি মডেল নির্বাচন। আমরা বিজয়ী মা ও ছেলেসহ সকল প্রার্থীদের অভিবাদন জানানে হয়েছে।

অপর দিকে বন্দোর খোলা ইউনিয়নের মেম্বার পদে মোঃ আতাউর রহমান তালা প্রতীক নিয়ে ৪৫৮ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মোঃ মনির হোসেন মোরগ প্রতীকে একই সংখ্যক ভোট পাওয়ায় ওই ওয়ার্ডটিতে পরবর্তীতে ওই দুই প্রার্থীর মধ্যে নির্বাচন হবে বলে জানিয়েছেন কমিশন।

এবিষয়ে মাদারীপুর জেলা নির্বাচন অফিসার মনিরুজ্জামান বলেন, যে দুই প্রার্থীর ফলাফল সমান সংখ্যক হয়েছে। পরবর্তী কমিশনের নির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী ওই দুই প্রার্থীর মাঝে ভোট হবে। তবে এই প্রার্থী কোন প্রকার প্রচার প্রচারণা করতে পারবে না।

সূত্র : আরটিভি
এন এইচ, ০৮ জানুয়ারি

Back to top button