ক্রিকেট

বিসিএল চ্যাম্পিয়ন ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন

ঢাকা, ০৬ জানুয়ারি – জয় থেকে ১ রান দূরে ছিল ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন। নাসুম আহমেদের শর্ট বল জাকের আলী মিড উইকেট দিয়ে বল উড়ালেন। বলটা সীমানা ছোঁয়ার আগেই ড্রেসিংরুম থেকে দৌড়ে মাঠে ঢুকলেন মজিদ, অপু, মুগ্ধ, তাইবুররা। সেই পথ অনুসরণ করলেন মিঠুন, সৌম্যরাও।

সে কী হুড়োহুড়ি, আনন্দ! স্টাম্প নেওয়ার তীব্র লড়াই। অপরপ্রান্তে থাকা অধিনায়ক শুভাগত হোম মুষ্টিবদ্ধ হাত শূন্যে ছুড়ে বার্তা দিলেন, ‘মিশন কমপ্লিট।’ বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের শিরোপা ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোনের।

অসাধারণ এক জয়ে বিসিএলের নবম আসরের শিরোপা জিতল ওয়ালটন সেন্ট্রাল। বিসিবি সাউথ জোনকে ৪ উইকেটে হারিয়ে তারা ঘরে তুলল দেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্ট বিসিএলের শিরোপা। এর আগে প্রথম ও চতুর্থ আসরেরও শিরোপা জিতেছিল ওয়ালটন সেন্ট্রাল।

প্রতিযোগিতার শেষ তিন আসরে হ্যাটট্রিক চ্যাম্পিয়ন সাউথ জোন। ওই তিন আসর খুব ভালো যায়নি ওয়ালটন সেন্ট্রালের। এবার শুরু থেকেই শিরোপা জিততে আত্মবিশ্বাসী ছিল দলটি। লিগের প্রথম ম্যাচ জয়ের পর দ্বিতীয় ম্যাচে হেরে যায় ১০ রানে। তৃতীয় ম্যাচ আবার ড্র করে তারা নাম লেখায় ফাইনালে। তিন রাউন্ড ও ফাইনাল শেষে তারাই এখন বিসিএল সেরা।

শিরোপা জিততে কঠিন পথ পাড়ি দিতে হয়েছে ওয়ালটন সেন্ট্রালকে। ২১৮ রানের বাধা টপকে রাজার মুকুট পরা চাট্টেখানি কথা ছিল না। ফরহাদ রেজা, কামরুল ইসলাম রাব্বী, নাসুম আহমেদ ও রানাদের আক্রমণে বিসিবি সাউথ জোন ছিল বেশ আক্রমণাত্মক। টপ ও মিডল অর্ডার ভালো না করায় চাপে পড়ে ওয়ালটন সেন্ট্রাল।

আজ পঞ্চম ও শেষ দিনের শুরুতেই উইকেটের মিছিলে সৌম্য, তাইবুর, সালমানরা। সাত সকালেই প্রবল চাপে ওয়ালটন সেন্ট্রাল। কিন্তু ২২ গজে নেমে শুভাগত যেন ভিন গ্রহের একজন। দৃঢ়চেতা মনোবল, চোয়ালবদ্ধ প্রতিজ্ঞা, হার না মানা লড়াইয়ে ওয়ালটন সেন্ট্রালকে শিরোপা জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন।

প্রথম ইনিংসে তার সেঞ্চুরি ও মিঠুনের ডাবলে ওয়ালটন সেন্ট্রাল লিড পেয়েছিল। দ্বিতীয় ইনিংসে তার হার না মানা ১১৪ রানের ইনিংসে ঘরে শ্রেষ্ঠত্বের পুরস্কার। ম্যাচ পরিস্থিতি বিবেচনায় তার ইনিংসটি অসাধারণ, অনবদ্য। দল যখন খাদের কিনারায় তখন প্রতি আক্রমণে শুভাগত এলোমেলো করেন সাউথ জোনের বোলিং আক্রমণ। তাতে মিরপুরে লেখা হলো শুভাগত কাব্য। ১৩ চার ও ২ ছক্কায় তার ১১৪ রানের ইনিংসটি সাজান ওয়ালটন সেন্ট্রালের অধিনায়ক।

সপ্তম উইকেটে শুভাগতকে সঙ্গ দেন জাকের আলী অনিক। মাটি কামড়ে পড়ে থাকা এ ব্যাটসম্যান ১২৪ বলে ৫ বাউন্ডারিতে ৪১ রান করেন। দুজন ২৩২ বলে ১৫৩ রানের জুটি গড়েন। তাতে শিরোপা জিতে যায় ওয়ালটন সেন্ট্রাল।

প্রথম ইনিংসে ডাবল সেঞ্চুরি করা মিঠুনকে ছাপিয়ে দুই ইনিংসে সেঞ্চুরি করা শুভাগত ফাইনালের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার পেয়েছেন। সঙ্গে মিঠুন পেয়েছেন টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কার।

প্রথম শ্রেণির টুর্নামেন্ট জয়ের পর ওয়ালটন সেন্ট্রালের নজর বিসিএলের ওয়ানডে ফরম্যাটে। আগামী ৯ জানুয়ারি থেকে সিলেটে শুরু হচ্ছে সেই টুর্নামেন্ট। যেখানে ওয়ালটন সেন্ট্রালের হয়ে খেলবেন সাকিব আল হাসান।

ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন: দ্বিতীয় ইনিংস ২২১/৬ ও প্রথম ইনিংস- ৪৩৮/১০

বিসিবি সাউথ জোন: দ্বিতীয় ইনিংস ২৬৮/১০ ও প্রথম ইনিংস- ৩৮৭/১০

ফল: ওয়ালটন সেন্ট্রাল ৪ উইকেটে জয়ী।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এন এইচ, ০৬ জানুয়ারি

Back to top button