মধ্যপ্রাচ্য

যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে জাতিসংঘের ব্যবস্থা চায় ইরান

তেহরান, ০৩ জানুয়ারি – ইরানের সাবেক শীর্ষ জেনারেল কাসেম সোলেইমানিকে হত্যার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে ইরান। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে চিঠি পাঠিয়ে এ আহ্বান জানানো হয়। রোববার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম।

দুই বছর আগে ইরানের এই জেনারেলকে বাগদাদের একটি বন্দরের কাছে ড্রোন হামলার মাধ্যমে হত্যা করা হয়। ইরান জানিয়েছে, কাসেম সোলেইমানি ইসলামি বিপ্লবী গার্ড কর্পস বা আইআরজিসির কুদস ফোর্সের তৎকালীন কমান্ডার ছিলেন। ইরাকের রাজধানী বাগদাদে কূটনৈতিক মিশনে থাকাকালীন তাকে যুক্তরাষ্ট্রের একটি ড্রোন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে হত্যা করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে পদক্ষেপের আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের কাছে একটি চিঠি পাঠিয়েছে ইরানের রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের আইন বিভাগ। চিঠিতে কাসেম সোলেইমানিকে হত্যার জন্য একটি রেজ্যুলেশন জারি করে যুক্তরাষ্ট্রকে নিন্দা ও ভবিষ্যতে অনুরূপ পদক্ষেপ গ্রহণে নিরুৎসাহিত করার জন্য আহ্বান জানানো হয়।

চিঠিতে আরও বলা হয়, মার্কিন সরকারগুলো বছরের পর বছর একতরফাভাবে তাদের আগ্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে আসছে। যার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক আইন ও চুক্তি লঙ্ঘন করছে তারা। ৩ জানুয়ারি জেনারেল সোলেইমানির দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকীকে সামনে রেখে এমন পদক্ষেপ নিলো ইরান।

তাছাড়া গত বছর ইন্টারপোলের কাছে ট্রাম্পসহ কয়েক ডজন মার্কিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে রেড নোটিশ জারি করারও অনুরোধ করেছিল ইরান। তাদের বিরুদ্ধে ইরাকি আদালতও গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছিল। সোলেইমানিকে হত্যার পর থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের সম্পর্ক অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে খারাপ অবস্থায় রয়েছে।

জানা গেছে, ইরানের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ নেতা ছিলেন জেনারেল কাসেম সোলেইমানি। সর্বোচ্চ নেতা খামেনির পরেই ছিল তার স্থান। এমনকি প্রেসিডেন্ট আর সরকারের চেয়েও ইরানে তার কথার মূল্য ছিল বেশি। সোলেইমানিকে অনেকে দুনিয়ার এক নম্বর জেনারেল বলতেন।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ০৩ জানুয়ারি

Back to top button