দক্ষিণ এশিয়া

টাকা শোধ দিতে না পারায় মহিলার শিশুকে সিগারেটের ছ্যাঁকা

অভিসেক রক্ষিত

নয়াদিল্লি, ৩১ অক্টোবর- মা টাকা ধার নিয়েছিল। সময়মতো দিতে পারেনি। আর সে কারণে তাঁর দু’‌বছরের কন্যা সন্তানের উপরেই অকথ্য অত্যাচার করার অভিযোগ উঠল ছত্তিশগড়ের (Chhattisgarh) এক পুলিশ কনস্টেবলের বিরুদ্ধে। এমনকী ওই কনস্টেবল শিশুটিকে দিয়ে জোর করে ‘‌বাবা’‌ বলানোর চেষ্টাও নাকি করে। কিন্তু শিশুটি তা না বলায়, তাকে সিগারেটের ছ্যাঁকাও দেয়। খবরটি সামনে আসতেই অবশ্য নড়েচড়ে বসেছে ছত্তিশগড় পুলিশ। শনিবার ওই পুলিশ আধিকারিককে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে।

জানা গিয়েছে, বালোদ (Balod) জেলার বাসিন্দা ওই মহিলার স্বামী কর্মসূত্রে নাগপুরে থাকেন। অভিযুক্ত কনস্টেবল অবিনাশ রাই এক মাস আগে ওই জেলাতেই কর্মরত ছিলেন। ভাড়া থাকতেন ওই মহিলার বাড়িতে। কিন্তু একমাস আগে দুর্গ জেলায় তাঁর ট্রান্সফার হয়। এদিকে, ওই মহিলাকে এর আগে কিছু টাকা ধার দিয়েছিল অভিযুক্ত অবিনাশ।

সেই ধারের টাকা ফেরত নিতেই গত বৃহস্পতিবার ওই মহিলার বাড়িতে হানা দিয়েছিল সে। কিন্তু ওই মহিলা টাকা দিতে পারবেন না জানাতেই স্বমূর্তি ধরে ওই কনস্টেবল। শুরু হয় অত্যাচার। এমনকী দুধের শিশুটিকে জোর করে ‘‌বাবা’ বলতে বলে। শিশুটি তা অস্বীকার করতেই তাকে শরীরের একাধিক জায়গায় সিগারেটের ছ্যাঁকা দেয় সে।

খবরটি প্রকাশ্যে আসতেই নড়েচড়ে বসে পুলিশ। শনিবার সকালে গ্রেপ্তার করা হয় ওই কনস্টেবলকে। একাধিক ধারায় মামলাও রুজু করা হয়েছে।আর এই ঘটনা জানতে পেরে অনেকেই সমালোচনায় মুখর হয়েছেন। সামান্য টাকার জন্য একজন পুলিশের আধিকারিক এতটা অমানবিক কীভাবেই বা হতে পারেন? সেই প্রশ্নও তুলছেন অনেকেই। দোষী কনস্টেবলের কঠিন শাস্তির সুপারিশ করেছেন প্রত্যেকে।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

আর/০৮:১৪/৩১ অক্টোবর

Back to top button