ব্যক্তিত্ব

আপনি কি বদমেজাজি! জেনে নিন কি কারণে

বেশ কয়েক বছর ধরেই গরম বাড়ছে পাল্লা দিয়ে। কিছুতেই ঠিক বাগে আসছে না সূর্যের চোখরাঙানি। এই গরমে শরীরও বিগড়োচ্ছে মাঝেমধ্যে। আর মন? মনও কিন্তু বিগড়োয়। কখনও জানান দিয়ে, কখনও আপনার অজান্তেই। অনেক সময়ই আপনি মেজাজ হারান। আবার পরে ঠান্ডা মাথায় ভাবলে দেখা যায় সেরকম কোনও কারণই ছিল না আপনার মেজাজ হারানোর।

তবে জানেন কি? এর পিছনে কিন্তু বিজ্ঞান আছে। মনোবিজ্ঞানীরা বলছেন, মানুষের মেজাজ ক্রমশ চরিত্র বদলাচ্ছে গরমের জন্য। প্রতি বছর যেভাবে গরম বাড়ছে, তার সঙ্গে সঙ্গে মন মেজাজও খারাপ হচ্ছে আমাদের। শুনতে অবাক লাগলেও, অনেকাংশেই অতিরিক্ত গরম মানুষের মনের গতিপথ বদলে দিতে পারে।

মানেটা খুব সহজ। অতিরিক্ত গরমে যদি আপনি অসুস্থ বোধ করেন, তাহলে মন ভাল থাকারও প্রশ্ন নেই। তাই নয় কি? তবে মনোবিজ্ঞানীরা আরও সতর্ক করেছেন, শুধু মন নয়, আপনাকে অসামাজিকও করে তুলতে পারে এই গরম।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়ায় লেহাই বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক লিউবা বেকিং জানান, আমাদের প্রত্যেকের ওপর গরমের প্রভাব আলাদা। সেভাবেই আমরা আলাদা আলাদাভাবে গরমের সঙ্গে নিজেদের মানিয়ে নিই। আমাদের চারপাশের পরিবেশ মনস্তাত্বিক জগতের ওপর যে ছায়া ফেলে তারই বহিঃপ্রকাশ আমাদের ব্যবহার। পরিবেশে পরিবর্তন হলে, স্বাভাবিকভাবেই মনোজগতেও তার আশ্চর্য প্রতিফলন দেখা যায়। অতিরিক্ত গরমে আমরা অনেকেই মানিয়ে নিতে পারিনা, বিরক্তি প্রকাশ করি, শারীরিক সমস্যাও শুরু হয়। তেমনই নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত থাকায় অন্যের প্রতি মনোযোগ দেওয়ার অবকাশও থাকে না। অসামাজিক হতে থাকি আমরা।

বেশ কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবকের ওপর পরীক্ষানিরীক্ষা চালিয়ে দেখা গিয়েছে, তাদের মধ্যে মাত্র ৩৪ শতাংশই গরমে কাজ করতে ইচ্ছুক। বাকি ৭৬ শতাংশই কাজ করতে চাইছেন না। তাই বদমেজাজি বলে যদি আপনার বদনাম থাকে, মনখারাপ করবেন না। দোষ তো সূর্যদেবের!

এম এন / ৩১ অক্টোবর

Back to top button