ক্রিকেট

মাশরাফীকে আইকন করা নিয়ে বিসিবিতে দ্বিমত

ঢাকা, ৩১ অক্টোবর- দেশের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টির সবচেয়ে সফল অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। তবে আসন্ন বঙ্গবন্ধু টি-২০ কাপে তাকে আইকন হিসেবে বিবেচনা করার ব্যাপারে ভিন্ন মত দুই বিসিবি পরিচালকের। মাশরাফীকে আইকন করার পক্ষে নন খালেদ মাহমুদ সুজন।

অন্যদিকে জালাল ইউনুস বলছেন, সময় মতো ফিট হলে, ৫ দলের একটিতে আইকন হতে পারেন মাশরাফী। এদিকে পিছিয়ে যেতে পারে বঙ্গবন্ধু টি-২০ কাপ। বিসিবি থেকে ১৫ নভেম্বর আসর শুরুর সম্ভাব্য তারিখ বলা হলেও, টিভি সম্প্রচার দরপত্র ইস্যুতে সেটা ৭-১০ দিন পিছিয়ে যেতে পারে।

বিপিএল ইতিহাসের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক। ঝুলিতে আছে চারটি শিরোপা। আসরের অন্যতম সেরা বোলারদেরও একজন, মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।

ইনজুরি জর্জরিত ক্যারিয়ারের শেষ প্রান্তে নড়াইল এক্সপ্রেস। গেল মার্চে সবশেষ খেলেছেন ওয়ানডে। ছিলেন না বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপে। তবে টি-২০ কাপ দিয়ে খেলায় ফেরার পরিকল্পনা ছিলো মাশরাফীর।

আসন্ন টুর্নামেন্টে ৫ দলে থাকবেন ৫ আইকন। গুঞ্জন আছে, এই ৫ জনের তালিকায় নেই মাশরাফী। তাঁর থাকা না থাকা নিয়ে দেখা দিয়েছে ধোঁয়াশা। এ নিয়ে বিসিবির দুই পরিচালকের কণ্ঠেও দুই রকম মত।

বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস বলেন, ৫ দলের আইকনে মাশরাফীর নাম নেই এটা ঠিক নয়। তার একটা ইনজুরি আছে। যদি সে সময় মতো ফিট হয় তবে মাশরাফীকেও বিবেচনা করা হবে।

আরেক পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন বলেন, এই ফরম্যাটে যারা সম্ভাবনাময় তাদের মধ্যে কাউকে আইকন করা উচিৎ। মাশরাফী টি-২০ খেলেনা দীর্ঘদিন। আমার মতে ওকে আইকন করা উচিৎ হবে না।

প্রেসিডেন্টস কাপের সফল আয়োজনের পর এখন বিসিবির ভাবনায় বঙ্গবন্ধু টি-২০ কাপ। সদ্য সমাপ্ত টুর্নামেন্টটি সম্প্রচার হয়েছে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে। যেখাবে অভাবনীয় সাড়া দেখে এবার টি-২০ টুর্নামেন্ট টেলিভিশনে সম্প্রচারের কথা ভাবছে ক্রিকেট বোর্ড। যার কারণে আসর শুরুর দিনক্ষণেও মিলেছে পরিবর্তনের আভাস।

জালাল ইউনুস বলেন, আমরা চাচ্ছি এবার টেলিভিশনে ম্যাচ দেখাতে। যার জন্য আন্তর্জাতিক দরপত্র আহ্বান করেছি। ম্যাচ সম্প্রচার, প্রোডাকশন এবং ডিজিটাল কন্টেন্টের জন্য আলাদা দরপত্র দেয়া হবে। আমরা চেষ্টা করবো ১৫ নভেম্বর টুর্নামেন্ট শুরু করতে। তবে কোনো কারণে সেটা সম্ভব না হলে, ৭-১০ দিন পিছিয়ে যেতে পারে।

বিপিএলে বরাবরই মোটা পারিশ্রমিক পেয়ে থাকেন ক্রিকেটাররা। তবে চলমান করোনা মহামারির কারণে প্রেক্ষাপট অনেক অনেকটাই ভিন্ন। তাই টি-২০ কাপের পারিশ্রমিকে প্রত্যাশায় লাগাম টেনে ধরার আভাস দিয়েছেন এই বোর্ড কর্তা।

জালাল ইউনুস বলেন, ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক থাকবে তবে সেটা বিপিএলের তুলনায় কম হবে। তবে এমন পারিশ্রমিক দেয়া হবে যাতে বিসিবি এবং ক্রিকেটার দু’পক্ষই সন্তুষ্ট থাকে।

এক ভেন্যুতেই হবে বঙ্গবন্ধু টি-২০ কাপের সব খেলা। ঝুঁকি এড়াতে ৫ দল, কোচিং স্টাফ এবং অফিশিয়ালদের বায়ো সিকিউর বাবলের আওতায় এনে এক হোটেলেই রাখতে চায় বিসিবি।

সূত্রঃ সময় নিউজ
আডি/ ৩১ অক্টোবর

Back to top button