মৌলভীবাজার

মৌলভীবাজার ও রাজনগরে বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জয় জয়কার

মৌলভীবাজার, ২৭ ডিসেম্বর – মৌলভীবাজার ও রাজনগর উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে এবার ভরাডুবি হয়েছে। পক্ষান্তরে আ’লীগ বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জয় জয়কার হয়েছে। এদিকে ৪নং আপার কাগাবলা ইউনিয়নে প্রিজাইডিং কর্মকর্তার কারসাজিতে আ’লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী ইমন মোস্তফাকে জেতানো হয়েছে এমন অভিযোগ করেছেন প্রতিদ্বন্দ্বী বাকী তিন চেয়ারম্যান প্রার্থী।

মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের মধ্যে মাত্র ৫টিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী জয়লাভ করেছে। বাকী ৮টিতে আ’লীগ বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়লাভ করেছে।

সদর উপজেলার ১নং খলিলপুর ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন বিএনপি (স্বতন্ত্র) প্রার্থী আবু মিয়া চৌধুরী, ২নং মনুমুখ ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন আ’লীগ প্রার্থী এমদাদ হোসেন জুনু, ৩নং কামালপুর ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন আ’লীগ বিদ্রোহী আপ্পান আলী, ৪নং আপার কাগাবলা ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন আ’লীগ বিদ্রোহী ইমন মোস্তফা, ৫নং আখাইলকুরা ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন আ’লীগ প্রার্থী শেখ বদরুজ্জামান চুনু, ৬নং একাটুনা ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন আ’লীগ প্রার্থী আবু সুফিয়ান, ৭নং চাঁদনীঘাট ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন আ’লীগ প্রার্থী আখতার উদ্দিন, ৮নং কনকপুর ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. রুবেল উদ্দিন, ৯নং কনকপুর ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন আ’লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী সুজিত দাশ, ১০নং নাজিরাবাদ ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন বিএনপি স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফ উদ্দিন আহমদ, ১১নং মোস্তফাপুর ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী তাজুল ইসলাম তাজ ও ১২নং গিয়াসনগর ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম মোশাররফ টিটু।

এদিকে আপার কাগাবলা ইউনিয়নে প্রার্থীদের সাথে দুর্ব্যবহারসহ কারসাজি করে ইমন মোস্তফাকে জিতিয়ে দেওয়ার অভিযোগ করেছেন, আ’লীগ প্রার্থী মুজিবুর রহমান, আ’লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী ফারুক আহমদ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মতিন। এই তিন চেয়ারম্যান প্রার্থী অভিযোগ করেছেন, সম্পূর্ণ প্রভাবিত হয়ে এবং নির্বাচনী আইন অমান্য করে প্রিজাইডিং কর্মকর্তা ফলাফল বদলিয়ে ইমন মোস্তফাকে জিতিয়েছেন। শুধু তাই নয়, ইমনকে জেতাতে দুইটি ব্যালট বাক্স মৌলভীবাজার নির্বাচন অফিসে এনে ফলাফল বদল করে ঘোষণা করেছেন প্রিজাইডিং কর্মকর্তা। এবিষয়টি এই তিন প্রার্থী মৌলভীবাজার সদর আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আ’লীগ সভাপতি নেছার আহমদকে জানিয়েছেন। তাঁরা এবিষয়ে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান।

এদিকে রাজনগর উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের মধ্যে ৭নং কামারচাক ইউনিয়নে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হয়েছেন আ’লীগ প্রার্থী আতাউর রহমান। বাকী ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে ৪টিতে আ’লীগ বিদ্রোহী, ১টিতে বিএনপি স্বতন্ত্র প্রার্থী ও ২টিতে আ’লীগ দলীয় প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচিতরা হলেন, ১নং ফতেহপুর ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন আ’লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী নকুল চন্দ্র দাশ, ২নং উত্তরভাগ ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন আ’লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী দীগেন্দ্র সরকার চঞ্চল, ৩নং মুন্সীবাজার ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন আ’লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী রাহেল হোসেন, ৪নং পাঁচগাঁও ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন আ’লীগ প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম ছানা, ৫নং রাজনগর ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন বিএনপি স্বতন্ত্র জুবায়ের চৌধুরী, ৬নং টেংরা ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন আ’লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী টিপু খাঁন ও ৮নং মনসুরনগর ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন আ’লীগ প্রার্থী মিলন বখ্ত।

সূত্র : সিলেটভিউ২৪
এম এস, ২৭ ডিসেম্বর

Back to top button