বিচিত্রতা

কানপুরে ব্যবসায়ীর বাড়িতে টাকার পাহাড়! ২৪ ঘণ্টা ধরেও গুনে শেষ হচ্ছে না

যে দিকে তাকানো যায়, সে দিকেই টাকার নোট! পীযূষ জৈন নামে কানপুরের এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে হানা দিয়ে ১৫০ কোটির নোট উদ্ধার করেছে আয়কর বিভাগ। একই সঙ্গে তল্লাশি চালানো হয়েছে তার একাধিক সংস্থায়। কানপুরের আয়কর বিভাগ যে ছবি দিয়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে, কর্মকর্তারা মাটিতে নোটের স্তূপের মধ্যে বসে মেশিনের সাহায্যে টাকা গুনছেন।

অন্য ছবিতে দেখা যায়, পীযূষের বাড়ির আলমারি ভর্তি টাকা। নোটগুলো রাখা হয়েছে ছোট ছোট বাক্সে। হলুদ টেপ দিয়ে যে বাক্সের মুখ বন্ধ করা।

আয়কর দপ্তর সূত্রে আনন্দবাজার পত্রিকায় বলা হয়েছে, শুক্রবার সকালে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১৫০ কোটি টাকার নোট উদ্ধার করা হয়েছে। তবে গণনা সম্পূর্ণ হয়নি। কানপুরের সঙ্গে মুম্বাইয়েও পীযূষের অফিসে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগে আয়কর বিভাগের কর্মকর্তারা তল্লাশি চালাচ্ছিলেন। তারা জানান, ওই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ভুয়া ইনভয়েস দিয়ে জিনিস পাঠানো, ই-ওয়ে বিল ছাড়া জিনিস পাঠানোর অভিযোগ উঠেছিল। ভুয়া সংস্থার নামেও ইনভয়েস তৈরি করার অভিযোগ ছিল। ৫০ হাজার টাকার ২০০টি এমন ভুয়া ইনভয়েস পাওয়া গেছে বলে অভিযোগ পীযূষের সংস্থার বিরুদ্ধে।

আয়কর বিভাগের কর্মকর্তারা প্রথমে আনন্দপুরীত পীযূষের বাড়িতে তল্লাশি চালান। সেখানেই উদ্ধার হয় ১৫০ কোটির নোট। পীযূষের সুগন্ধী দ্রব্যের ব্যবসা। সেই সঙ্গে তার কোল্ড স্টোর, পেট্রোল পাম্পেরও ব্যবসা রয়েছে। মুম্বাইয়ের একটি শো-রুমের মালিক তিনি। কানপুরে আয়কর দপ্তরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মুম্বাইয়ের কর্মকর্তারাও যোগ দেন এই তল্লাশিতে।

এম ইউ/২৪ ডিসেম্বর ২০২১

Back to top button