দক্ষিণ এশিয়া

শুধুমাত্র বিয়ের জন্য ধর্মান্তকরণ গ্রহণযোগ্য নয়, জানিয়ে দিল এলাহাবাদ হাই কোর্ট

লক্ষ্ণৌ, ৩১ অক্টোবর- শুধু বিয়ে করার জন্য ধর্ম পরিবর্তন করা যাবে না বলে জানিয়েছেন ভারতের এলাহাবাদ হাইকোর্ট। শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) এক দম্পতির পুলিশি নিরাপত্তা চেয়ে দায়ের করা রিট আবেদন খারিজের সময় এ কথা বলেন আদালত। এ সময় আদালত জানান, ওই নারী একজন মুসলিম ছিলেন এবং বিয়ের কয়েক মাসে আগে তিনি হিন্দু ধর্মে ধর্মান্তরিত হন।

বিচারপতি মহেশ চন্দ্র ত্রিপাঠি বলেছেন, এটি স্পষ্ট যে তিনি শুধু বিয়ের জন্য ধর্ম পরিবর্তন করেন। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, এ সময় বিচারপতি ত্রিপাঠি ২০১৪ সালের একটি রায়ের উল্লেখ করেন। যেখানে একই আদালত জানিয়েছিল কেবল বিয়ের উদ্দেশ্যে ধর্মান্তর গ্রহণযোগ্য নয়। এরপরে আদালত ওই রিট পিটিশনটি খারিজ করে দেন এবং বলেন, ভারতীয় সংবিধানের ২২৬ অনুচ্ছেদে এতে হস্তক্ষেপের সুযোগ নেই।

আরও পড়ুন: মুম্বাইয়ের রাস্তায় ম্যাক্রোঁর পোস্টার

২০১৪ সালের রায়ে এলাহাবাদ হাইকোর্ট হিন্দু থেকে মুসলিম ধর্মে ধর্মান্তরিত হয়ে বিয়ে করা এক নারীর পুলিশি নিরাপত্তার রিট আবেদন খারিজ করেছিলেন। আদালত তখন বলেছিলেন, ‘ইসলাম সম্পর্কে কিছু না জেনে এবং ইসলামে বিশ্বাসী না হয়ে শুধুমাত্র কোনো মুসলিম ছেলেকে বিয়ে করতে কোনো হিন্দু মেয়ের ধর্মান্তরিত হওয়া কি বৈধ?’

ওই প্রশ্নের উত্তর নেতিবাচক এলে আদালত মন্তব্য করেছিলেন, ‘একজন ব্যক্তি ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত হতে পারে যদি তিনি নির্দ্বিধায় নিজের ইচ্ছায় এটি করেন। একইসঙ্গে তিনি যদি শুধুমাত্র আল্লাহ এবং তার নবী মোহাম্মদ (সা.) কে বিশ্বাস করেন।’ ২০১৪ সালে এলাহাবাদ হাইকোর্ট বলেছিল, শুধু বিয়ের জন্য ধর্মান্তর মেনে নেওয়া যাবে না। সেই মামলার প্রসঙ্গ টেনেই আজকের পিটিশন খারিজ করেন আদালত।

সূত্র : বিডি২৪লাইভ
এন এইচ, ৩১ অক্টোবর

Back to top button