উত্তর আমেরিকা

এবার যুক্তরাষ্ট্রে মলনুপিরাভির অনুমোদন

ওয়াশিংটন, ২৪ ডিসেম্বর – ফাইজারের করোনার মুখে খাওয়ার ওষুধ প্যাক্সলোভিড গত বুধবার অনুমোদন দিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ)। এবার ওষুধ প্রস্তুতকারী মার্কিন বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান মার্কের করোনা প্রতিরোধী ওষুধ ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে তারা। ওষুধটি যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে মলনুপিরাভির নামে পরিচিত।

এফডিএ জানিয়েছে, শুধুমাত্র উচ্চ ঝুঁকিতে থাকা করোনা রোগীদের চিকিৎসায় এ ওষুধ ব্যবহার করা যাবে।

গবেষণায় দেখা গেছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর উচ্চ ঝুঁকিতে থাকা রোগীদের হাসপাতালে ভর্তি ও মৃত্যুর হার ৩০ শতাংশ কমাতে পারে মার্কের ওষুধটি। সাধারণত করোনার উপসর্গ দেখা দেওয়ার পাঁচ দিনের মধ্যে এই ওষুধ গ্রহণ করতে হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মার্কের এই বড়ি ১৮ বছরের কম বয়সী কেউ সেবন করতে পারবে না। অনুমোদন মেলেনি অন্তঃসত্ত্বা নারীদের ক্ষেত্রেও। তবে চিকিৎসকরা পরিস্থিতি বিবেচনা করে তাদের ওপর ওষুধটি ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন।

এর আগে ইজারের ওষুধ পরীক্ষা করে দেখা গেছে, এটি করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তির হাসপাতালে ভর্তি ও মৃত্যুর ঝুঁকি ৮৮ শতাংশ কমায়।

এদিকে এফডিএর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, মার্ক ও ফাইজারের ওষুধ টিকার বিকল্প নয়। করোনা মোকাবিলায় টিকার সহায়ক হিসেবে কাজ করবে মুখে খাওয়া এই ওষুধগুলো।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ২৪ ডিসেম্বর

Back to top button