কক্সবাজার

এক বছর আগে পুঁতে রাখা রোহিঙ্গা মাঝির লাশ উদ্ধার, আটক ৩

কক্সবাজার, ১৯ ডিসেম্বর – উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এক বছর আগে অপহৃত রোহিঙ্গা মাঝির লাশ বাড়ির মেঝেতে পুঁতে রাখা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় ৩ জনকে আটক করেছে ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)।

শনিবার রাত ৯টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ৮ এপিবিএন এর অধিনায়ক পুলিশ সুপার সিহাব কায়সার খান।

আটকেরা হলেন- উখিয়া হাকিমপাড়া ক্যাম্প-১৪, ব্লক-ই/৩ এর মো. সালামের ছেলে মো. ইসলাম (২২), একই এলাকার কাশেমের ছেলে আবদুল মোন্নাফ (২৬) এবং মো. সালামের ছেলে মো. ইলিয়াস (২৮)।

তিনি জানান, উখিয়ার হাকিমপাড়া ক্যাম্প-১৪ হাকিমপাড়া ই/৩ ব্লকে মাঝি ও ভলান্টিয়ারদের সমন্বয়ে ব্লক রেইড পরিচালনা করে ৩ রোহিঙ্গা দুষ্কৃতিকারীকে আটক করা হয়।

এ সময় তাদের জিজ্ঞাসাবাদে তারা স্বীকার করেন- এ বছর জানুয়ারি মাসে চাকমারকুল ক্যাম্প-২১, সি/৪ ব্লক এর মৃত মোছা আলীর ছেলে (সাবেক এম ব্লক) এর সাব-মাঝি সৈয়দ আমীনকে (৪০) আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে অপহরণ করে ক্যাম্প-১৪তে নিয়ে আসে। অপহরণের পর ভিকটিমের পরিবারের কাছ থেকে মুক্তিপণ হিসেবে ৮০ হাজার টাকা দাবি করে।

পরে রোহিঙ্গা ২০/২৫ জন দুষ্কৃতকারী মিলে তাকে হত্যা করে ক্যাম্প-১৪ এর প্রাক্তন মাঝি ইয়াকুবের পরিত্যক্ত ঘরের মেঝেতে লাশ পুঁতে রাখে।

এসপি সিহাব কায়সার জানান, শনিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ক্যাম্প-১৪ এর সিআইসিসহ থানা-পুলিশের উপস্থিতিতে ইয়াকুব মাঝির ঘর থেকে লাশ উত্তোলন করা হয়। পরনে থাকা কাপড়, বেল্ট ও মাথার চুল দেখে স্বামীর লাশ শনাক্ত করেন সৈয়দ আমীনের স্ত্রী হাসান বশর।

এই সংক্রান্তে টেকনাফ থানায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলে জানান ৮ এপিবিএন এর এই কর্মকর্তা।

সূত্র : দেশ রূপান্তর
এম এস, ১৯ ডিসেম্বর

Back to top button