ক্রিকেট

কোহলি ইস্যুতে কথা বলতে নারাজ গাঙ্গুলি

নয়াদিল্লী, ১৭ ডিসেম্বর – ভারতের সীমিত পরিসরের সাবেক অধিনায়ক বিরাট কোহলির মন্তব্যে তোলপাড় ক্রিকেট দুনিয়া। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের ঠিক আগে কোহলি বিসিসিআইকে নিয়ে যে মন্তব্য করেছেন তাতে স্পষ্ট কোহলি ও বিসিসিআইয়ের সম্পর্কে ফাটল ধরেছে।

দুদিন ধরে এসব নিয়ে বেশ কথা চলছে। তবে বিসিসিআই আনুষ্ঠানিকভাবে কিছুই বলছিল না। অবশেষে মুখ খুললেন বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি।

বৃহস্পতিবার গাঙ্গুলি এক গণমাধ্যমে বলেন, ‘এই বিষয়ে কোনো বিবৃতি দেওয়া হবে না। কোনো সংবাদ সম্মেলনও হবে না। আমরা যথাযথভাবে এটা সামলে নেব। বিসিসিআইয়ের ওপর ছেড়ে দিন।’

বিশ্বকাপের পর টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেবেন, এমন ঘোষণা আগে দিয়েছিলেন কোহলি। গাঙ্গুলির দাবি, কোহলির এমন ঘোষণার পর তার সিদ্ধান্ত পুর্নবিবেচনার জন্য বিসিসিআই থেকে বলা হয়। কিন্তু বুধবার সংবাদ সম্মেলনে এসে গাঙ্গুলির কথা মিথ্যা বলে উড়িয়ে দেন। তিনি বলেছেন, ‘যে কথা বলা হচ্ছে, আমার সঙ্গে যোগাযোগ করে সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের কথা বলা হয়েছে, এটা সম্পূর্ণ ভুল। এছাড়া ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে আমাকে রাখা হচ্ছে না তা আমাকে দেড় ঘণ্টা আগে জানানো হয়। টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর পর বিসিসিআই থেকে আমার সঙ্গে কেউই যোগাযোগ করেনি।’

কোহলি আরো যোগ করেন, ‘আমি যখন টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেই তখন বিসিসিআইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করি এবং তারা আমার সিদ্ধান্তকে গ্রহণ করে। টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব থেকে সরে যাওয়ার কারণ ছিল এবং আমার সিদ্ধান্ত তারা মেনেও নেয়। কোনো অজুহাত কিংবা অনুরাগ নেই আমার। আমাকে কেউ একবারও বলেনি, তুমি অধিনায়কত্ব ছেড় না।’

এর আগে পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে গাঙ্গুলি বলেন, ‘আমরা বিরাটকে অনুরোধ করেছিলাম টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব না ছাড়তে কিন্তু সে এ দায়িত্ব চালিয়ে যেতে রাজী নয়। এ জন্য নির্বাচকরা মনে করেছে, সাদা বলের ক্রিকেটের জন্য দুজন অধিনায়ক রাখার কোনো মানে নেই।’

সূত্র : রাইজিংবিডি
এন এইচ, ১৭ ডিসেম্বর

Back to top button