জাতীয়

বাংলাদেশের মানুষের ‘স্বপ্নের সোনার বাংলা’ শিগগিরই বাস্তবায়িত হবে : ভারতের রাষ্ট্রপতি

ঢাকা, ১৬ ডিসেম্বর – বাংলাদেশের মানুষের ‘স্বপ্নের সোনার বাংলা’ শিগগিরই বাস্তবায়িত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং বাংলাদেশের বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীতে আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় ‘মহাবিজয়ের মহানায়ক’ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

ভারতের রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্ব অনন্য। এ সম্পর্ক পারস্পরিক শ্রদ্ধা-আস্থা-সমতা আর শ্রদ্ধাবোধের। খুব শিগগিরই দুই দেশের যোগাযোগ নতুন উচ্চতায় পৌঁছাবে। বাংলাদেশের ভৌগোলিক অবস্থান আর চলমান অগ্রযাত্রা দেশটিকে লক্ষ্যে পৌঁছে দেবে।’

অনুষ্ঠানে বক্তব্যের শুরুতে রামনাথ কোবিন্দ বাংলায় বাংলাদেশের মানুষকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানান। কোবিন্দ বলেন, ‘নমস্কার, শুভসন্ধ্যা, আসসালামু আলাইকুম। আমি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের জনগণকে আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাই।’ বক্তব্যের মাঝামাঝি তিনি জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের বিদ্রোহী কবিতার কয়েক চরণ আবৃত্তি করেন।

অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেন, ‘৫০ বছরে বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথে বাংলাদেশ কতটা চলতে পেরেছে, তা মূল্যায়নের সময় এসেছে।’ মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশের পাশে দাঁড়ানোর জন্য ভারতের সরকার ও জনগণকে কৃতজ্ঞতা জানান আব্দুল হামিদ। তিনি বলেন, ‘ভারত কেবল বাংলাদেশের নিকটতম প্রতিবেশীই নয়, পরীক্ষিত বন্ধুও।’

এর আগে বিকেলে বাংলাদেশের বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে দেশব্যাপী শপথ বাক্য পাঠ করান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শপথ পাঠ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলে- রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, জাতীয় সংসদের স্পিকারসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মীরা। শপথ বাক্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের আদর্শে উন্নত, সমৃদ্ধ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনার সোনার বাংলা গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী।

সূত্র: আমাদের সময়
এম ইউ/১৬ ডিসেম্বর ২০২১

Back to top button