ব্যবসা

ওয়ান ব্যাংকের কর্মকর্তাসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

ঢাকা, ১৬ ডিসেম্বর – ওয়ান ব্যাংকের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ব্যাংকটির এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ফয়সাল আদিলসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদকের প্রধান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক সৈয়দ নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে গত বুধবার কমিশনের সমন্বিত জেলা কার্যালয় (সজেকা) ঢাকা-১ এ মামলাটি দায়ের করেন।

এজাহারে আসামিদের বিরুদ্ধে চারটি ইন্সুরেন্স কোম্পানির বিভিন্ন ব্যাংক হিসাব ও আসামিদের ব্যাংক হিসাবে অবৈধ প্রক্রিয়ায় ১১ কোটি ৪০ লাখ টাকা স্থানান্তরের মাধ্যমে উত্তোলন করে আত্মসাতের অভিযোগ করা হয়েছে।

এজাজারে আরও বলা হয়, আসামিরা পরস্পর যোগসাজসে ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের অনুমতি ছাড়া ঢাকাস্থ গুলশান শাখার বিভিন্ন বিদেশি হিসাব থেকে ডলার টাকায় রূপান্তর করে অন্যান্য ব্যাংক হিসাবে স্থানান্তর করা হয়। পরে জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে চারটি ইন্সুরেন্স কোম্পানির সহায়তায় ভুয়া ইন্সুরেন্স কভার নোট ও মেরিন পলিসি তৈরি করে আসামিদের পাঁচজন আসামির ব্যাংক হিসাবে ১১ কোটি ৪০ লাখ ২৩ হাজার ৯২০ টাকা স্থানান্তর ও উত্তোলন করে আত্মসাৎ করা হয়। চার ইন্সুরেন্স কোম্পানি হলো, পাইওনিয়ার, প্রভাতি, এক্সপ্রেস ও সিটি জেনারেল ইন্সুরেন্স।

আসামিদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪২০/৪০৯/ ৪৬৭/৪৬৮/৪৬৯/৪৭১/১০৯ ধারা, ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারা ও মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন-২০১২ এর ৪(২) ও (৩) ধারা লঙ্ঘনের অভিযোগ করা হয়েছে।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন, ব্যাংকের গুলশান-১ শাখার প্রিন্সিপাল অফিসার মো. এমরান হোসেন ওরফে মোহাম্মদ এমরান হোসেন, একই শাখার ফার্স্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট শফিউল আলম, সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট বিমলেন্দু চৌধুরী, অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড রিলেশনশিপ ম্যানেজার মুনতাসির রহমান সিদ্দিকী, সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার আবু কালাম মোহাম্মদ সাখাওয়াৎ হোসেন ওরফে একেএম সাখাওয়াত হোসেন, জুনিয়র অফিসার মো. শামিম। এছাড়া ব্যাংকের ওই শাখার সঙ্গে জড়িত অন্য আসামিরা হলেন, আজিজুর রহমান, রাকিবা জাহান, তানভীর হোসেন, পেশোয়ারা বেগম ও সুবু তারা হাওলাদার।

সূত্র : সমকাল
এন এইচ, ১৬ ডিসেম্বর

Back to top button