পশ্চিমবঙ্গ

কলকাতার দুর্গাপূজা পেল ‘হেরিটেজ’ স্বীকৃতি

কলকাতা, ১৬ ডিসেম্বর – জাতিসংঘের শিক্ষা, সংস্কৃতি ও বিজ্ঞানবিষয়ক সংস্থা–ইউনেস্কো কলকাতার দুর্গাপূজা উৎসবকে ‘ইনট্যানজিবল কালচারাল হেরিটেজ’ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে।

বুধবার (১৫ ডিসেম্বর) ইউনেস্কোর ভারতীয় বিভাগের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে এক বার্তায় বলা হয়েছে, কলকাতার দুর্গাপূজার আছে দীর্ঘ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য। যে কারণেই এটিকে ইউনেস্কোর কালচালার হেরিটেজের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হলো।

১৩ থেকে ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত ফ্রান্সের প্যারিসে আয়োজিত হচ্ছে ইন্টারগভর্নমেন্ট কমিটির ষষ্ঠদশ অধিবেশন। সেই অধিবেশনেই কলকাতার দুর্গাপূজাকে ইউনেস্কোর ইনট্যানজিবল কালচারাল হেরিটেজ অব হিউম্যানিটির তালিকায় স্থান দেওয়া হয়েছে। এই স্বীকৃতি পাওয়ার পর টুইট করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি লেখেন, এই স্বীকৃতি প্রত্যেক ভারতীয়ের জন্য গর্বের ও আনন্দের। দুর্গাপূজা আমাদের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের সেরা দিকগুলি আলোকিত করে। সবার উচিত দুর্গাপূজা দেখার অভিজ্ঞতা অর্জন করা।

চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসে কলকাতার শারদোৎসবের জন্য আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়ে উদ্যোগী হয়েছিল পশ্চিমবঙ্গ সরকার। কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে আবেদন গিয়েছিল জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সাংস্কৃতিক বিভাগে। সেই আবেদনের মূল্যায়ন করেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা। সেই বিচারেই এবার ‘হেরিটেজ’ তকমা পেল পশ্চিমবঙ্গের সেরা উৎসব।

প্রসঙ্গত, শেষ বার ২০১৭ সালে এই ধরনের স্বীকৃতি পেয়েছিল কোনো ভারতীয় উৎসব। সে বছর কুম্ভমেলাকে এই স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছিল। তার আগের বছর ২০১৬ সালে যোগচর্চা এই স্বীকৃতি পেয়েছিল। তারও আগে ২০১৪ সালে পঞ্জাবের ঐতিহ্যবাহী পিতল এবং তামার শিল্প সাংস্কৃতিক হেরিটেজের স্বীকৃতি পেয়েছিল। এ ছাড়াও ২০১৩ সালে মণিপুরের কীর্তন গানকে হেরিটেজের স্বীকৃতি দিয়েছিল ইউনেস্কো।

সূত্র: জাগো নিউজ
এম ইউ/১৬ ডিসেম্বর ২০২১

Back to top button