দক্ষিণ এশিয়া

মদন মিত্রর সঙ্গে একান্তে কথা তৃণমূলত্যাগী প্রবীর ঘোষালের!

নয়াদিল্লী, ১৩ ডিসেম্বর – চাটার্ড ফ্লাইটে দিল্লি, তৃণমূল ছেড়ে খোদ অমিত শাহর বাড়ি গিয়ে বিজেপিতে যোগদান। গেরুয়া শিবিরে বেশ কিছুদিন সময় কাটানো। একুশের বিধানসভা নির্বাচনে গেরুয়া শিবিরের হয়ে ভরপুর প্রচার। আর তারপর সেখানেও ‘দমবন্ধ’ দশা। ফলে অলিখিতভাবে বিজেপির (BJP) সঙ্গেও দূরত্ব বাড়িয়ে ফেলা। উত্তরপাড়ার প্রাক্তন বিধায়ক প্রবীর ঘোষালের এই মুহূর্তে রাজনৈতিক অবস্থান এমনই।

তবে রবিবারের একটি দৃশ্য নতুন করে তাঁর রাজনৈতিক পথচলা সম্পর্কে জল্পনা বাড়িয়ে দিল। হুগলির কোন্নগরের এক অনুষ্ঠানে মদন মিত্রর সঙ্গে একই মঞ্চে দেখা গেল তাঁকে। কিছুক্ষণ একান্তে কথাও বলেন তাঁরা। আর তাতেই গুঞ্জন শুরু হয়েছে। তবে কি ফের পুরনো শিবিরে প্রত্যাবর্তন করছেন প্রবীর ঘোষাল?

একুশের নির্বাচনের আগে তৃণমূলত্যাগী একগুচ্ছ রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যে ছিলেন দলের প্রাক্তন বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল। তারপর অবশ্য হুগলি নদী দিয়ে গড়িয়েছে অনেকটা জল। তাঁর রাজনৈতি জীবনেও ওঠাপড়া হয়েছে বিস্তর। বিজেপির সঙ্গে দূরত্ব বেড়েছে। আপাতত নিজের রাজনৈতিক অবস্থান এখনও স্পষ্ট করেননি প্রবীর ঘোষাল। কিন্তু তাই বলে আলোচনা, গুঞ্জনও বন্ধ নেই। বিজেপির সঙ্গে মানিয়ে চলতে না পেরে আবার কি তৃণমূলে ফিরবেন তিনি? এর কোনও উত্তর পাওয়া গেল না রবিবারও। কোন্নগরে বইমেলার অনুষ্ঠানে মদন মিত্রের পাশে দাঁড়িয়েও এই উত্তর এড়িয়ে গেলেন। যদিও মদন মিত্রকে তিনি ভরিয়ে দিলেন ভূয়সী প্রশংসায়।

প্রবীর ঘোষালের সাফ কথা, ”বইমেলায় রাজনীতির কোনও কথা বলব না। এটা রাজনৈতিক আলোচনার জায়গা নয়।” মদন মিত্রও অবশ্য এ নিয়ে বিশেষ খোলসা করলেন না। সাক্ষাৎপর্বকে বিশেষ আমল না দিয়েও তাঁর ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য, ”প্রবীরকে তৃণমূল ফের দলে নিলে আমি স্বাগতই জানাব।”

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন
এন এইচ, ১৩ ডিসেম্বর

Back to top button