উত্তর আমেরিকা

রাশিয়াকে কঠোর হুঁশিয়ারি দিলেন বাইডেন

ওয়াশিংটন, ১৩ ডিসেম্বর – মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে হুশিয়ারি করে বলেছেন, রাশিয়া যদি ইউক্রেইনে আক্রমণ করে, তবে ‘ভয়ানক মূল্য’ দিতে হবে এবং বিপর্যয়কর অর্থনৈতিক পরিণতি ভোগ করতে হবে।

বাইডেন জানান, রাশিয়ার আক্রমণের ক্ষেত্রে ইউক্রেইনে মার্কিন স্থলসেনা পাঠানোর সম্ভাবনা ‘কখনোই বিবেচনা করা হয়নি’, তবে রাশিয়ার সীমান্তবর্তী নেটোভুক্ত পূর্ব ইউরোপের দেশগুলোর প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা শক্তিশালী করতে যুক্তরাষ্ট্র ও নেটোকে সেখানে আরও সৈন্য পাঠাতে হতে পারে।

পুতিনের সঙ্গে গত সপ্তাহে ফোনে দুই ঘণ্টা আলাপ করেছেন বলে জানান বাইডেন। সে সময় তিনি ইউক্রেইনে হঠাৎ কোনো আক্রমণ বা হামলার ঘটনা ঘটলে বিশ্বে রাশিয়ার অবস্থানের ‘সুস্পষ্টরূপে’ পরিবর্তন হবে বলেও রুশ প্রেসিডেন্টকে পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দিয়েছেন বলে জানান।

বাইডেন বলেন, ‘আমি প্রেসিডেন্ট পুতিনকে একেবারে স্পষ্ট করে বলেছি, যদি তিনি ইউক্রেইনের দিকে আগান, তবে তার অর্থনীতির জন্য পরিণতি হবে ধ্বংসাত্মক, ধ্বংসাত্মক’।

গতকাল শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হানা প্রাণঘাতী টর্নেডো নিয়ে মন্তব্য করার পর তিনি এ কথা বলেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

যুক্তরাজ্যের লিভারপুলে শনিবার বৈঠক শেষে জি৭ দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীরাও ইউক্রেইনে আক্রমণ হলে রাশিয়াকে ভয়াবহ পরিণতি ভোগ করতে হবে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন। মস্কোকে আলোচনার টেবিলে ফিরতেও তাগিদ দিয়েছেন কর্মকর্তারা।

জি৭ জোটভুক্ত দেশগুলোর অর্থমন্ত্রীরা মূল্যস্ফীতিসহ অর্থনৈতিক নানান উদ্বেগ নিয়ে বৈঠকে বসবেন সোমবার, রাশিয়া ইউক্রেইনে হামলা চালালে সেখানেও মস্কোর ওপর সম্ভাব্য নিষেধাজ্ঞার প্রসঙ্গও উঠবে বলে জানিয়েছেন তারা।

ইউক্রেইনের অভিযোগ, তাদের দেশে রাশিয়া বড় ধরনের সামরিক অভিযান চালানোর চিন্তা থেকেই সীমান্তে লাখো সৈন্য জড়ো করছে । তবে এ ব্যাপারে মস্কো বলেছে, ইউক্রেইনে হামলা চালানোর কোনো পরিকল্পনা তাদের নেই। উল্টো যুক্তরাষ্ট্র ও ইউক্রেইনের বিরুদ্ধে ‘অস্থিতিশীল আচরণ’করার অভিযোগ করছে তারা।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ১৩ ডিসেম্বর

Back to top button