আইন-আদালত

ডাবের পানির সঙ্গে বিষ মিশিয়ে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর ফাঁসি

বরিশাল, ১২ ডিসেম্বর – বরিশালের আগৈলঝাড়ায় ৩ লাখ টাকা যৌতুক না পেয়ে ডাবের পানির সাথে বিষ খাইয়ে স্ত্রী আয়শা আক্তারকে হত্যার দায়ে স্বামী সাইদুল ইসলাম মৃধাকে ১ লাখ টাকা জরিমানাসহ মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

রোববার দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক আবু শামীম আজাদ আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত সাইদুল ইসলাম মৃধা বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার বাকাল গ্রামের আলতাফ মৃধার ছেলে। স্ত্রী নিহত আয়শা আক্তার গোপালগঞ্জের বাগবাড়ি গ্রামের ফজলু কাজীর মেয়ে।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি ফয়েজ আহমেদ বলেন, সাইদুল তার স্ত্রীর কাছে ৩ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। টাকা না দেয়ায় বিভিন্ন সময় স্ত্রী আয়শা আক্তারের ওপর নির্যাতন চালিয়ে আসছিলেন তিনি। এর ধারাবাহিকতায় ২০১৬ সালের ৩ অক্টোবর বেলা ১২টার দিকে সাইদুল তার নিজ বাড়িতে স্ত্রীকে ডাবের পানি খাওয়ায়। মুহূর্তেই তার স্ত্রী মাথা ঘুরে পড়ে যায়। অসুস্থ অবস্থায় বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেলে ভর্তি করা হলে ওইদিন রাত ৩টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় ৫ অক্টোবর নিহতের বাবা ফজলু কাজী বাদী হয়ে আয়শার স্বামী, শ্বশুর-শাশুড়িসহ ৫ জনকে আসামি করে আগৈলঝাড়া থানায় মামলা দায়ের করেন। তদন্তে ৩ আসামিকে অব্যাহতি দিয়ে শুধুমাত্র সাইদুল ও তার মা বিলকিস বেগমকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। পরে অভিযোগ গঠনের সময় বিলকিস বেগমকে অব্যাহতি দেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল।

বিচারকাজ চলাকালে ২০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে ডাবের পানির সাথে বিষ খাইয়ে স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ প্রমাণিত হলে স্বামী সাইদুল ইসলাম মৃধাকে এই দণ্ড দেন ট্রাইব্যুনালের বিচারক।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
এম ইউ/১২ ডিসেম্বর ২০২১

Back to top button